Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮ আশ্বিন ১৪২৮, ১৫ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ইসরাইলের জাতীয় সংগীত ‘চুরি’ করেছেন আনু মালিক!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ আগস্ট, ২০২১, ৯:৫৫ পিএম

এবারের অলিম্পিকে জিমন্যাস্টিক্স বিভাগে ইতিহাস গড়ে সোনা জিতেছেন ইসরাইলের প্রতিযোগী ওর্টেম ডোলগোপ্যাট। তিনি পদক নিতে মঞ্চে উঠতেই বেজে ওঠে দেশটির জাতীয় সংগীত। এরপরেই নেট দুনিয়ায় ধরে পড়ে ইসরাইলের জাতীয় সংগীতের সুর ‘চুরি’ করেছেন ভারতীয় সংগীত পরিচালক আনু মালিক!

অনেকেই হয়তো খবরটি শুনে চমকে গেছেন। আসুন, জানা যাক আসল ব্যাপারটা। অলিম্পিকের মঞ্চে ইসরাইলের জাতীয় সংগীতের সুর বেজে উঠতেই হিন্দি সিনেমার দর্শকদের ভুরু কুঁচকে ওঠে। কেমন যেন চেনা চেনা সুর। একটু ঘাঁটতেই বেরিয়ে আসে ১৯৯৬ সালে অজয় দেবগন অভিনীত 'দিলজ্বলে' সিনেমার 'মেলা মুল্ক মেরা দেশ' এর সুরের সঙ্গে ইসরাইলের জাতীয় সংগীত 'হাতিকভা'র সুরের হুবহু মিল। নেটিজেনদের আর বুঝতে অসুবিধা হয়নি 'হাতিকভা'র সুর স্রেফ ওই গানটিতে বসিয়ে দিয়েছিলেন আনু। খবরটি প্রকাশ্যে আসতেই ভাইরাল হয়ে যায় নেট দুনিয়ায়। এরপর থেকেই নেটিজেনদের কটাক্ষ এবং তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন বলিউডের নামি সংগীত পরিচালক আনু মালিক।

এভাবে সুর চুরি করার কারণে কেউ কেউ তাকে 'নির্লজ্জ' বলছেন। কেউ আবার সরাসরি কমেন্ট করছেন, ‘এক দেশের জাতীয় সংগীত চুরি করে অন্য দেশের সিনেমার জাতীয়তাবাদী গানে সেই সুর ব্যবহার করেছেন আনু। এমন চুরির জন্য তাকেই সোনার পদক দেওয়া উচিত!' উল্লেখ্য, এর আগেও অনেকবার সুর চুরির অভিযোগ উঠেছে আনু মালিকের বিরুদ্ধে। 'দিল মেরা চুরায়া কিঁউ','নিঁদ চুরায়ি মেরি কিসনে ও সনম','কহো না কহো' এর মতো বলিউডের দুর্দান্ত সব হিট গান এই তালিকায় রয়েছে। সেসব ক্ষেত্রে আনু অবশ্য বারবারই বলেছিলেন, মূলত বিদেশি গানের সুর থেকে 'প্রেরণা' নিয়ে তিনি গানগুলো করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংগীত

২৫ নভেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন