Inqilab Logo

শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২ আশ্বিন ১৪২৮, ০৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

মালয়েশিয়ায় আবার ঐক্যবদ্ধ মাহাথির-আনোয়ার

প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ আগস্ট, ২০২১, ১২:০১ এএম

আবারো সব মতবিরোধ পেছনে ফেলে একসঙ্গে রাজনীতির মাঠে নামলেন মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে হেভিওয়েট সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ ও আনোয়ার ইব্রাহিম। পার্লামেন্ট বন্ধ রাখার বিরুদ্ধে এবং প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের পদত্যাগ দাবিতে গতকাল সোমবার রাজপথে নেমেছেন তারা। যোগ দিয়েছেন বিরোধীদের বিক্ষোভে। গতকাল সেখানে পার্লামেন্টের চলতি অধিবেশনের শেষ দিন ছিল। কিন্তু আইনপ্রণেতাদের কয়েকজনের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার পর তা বাতিল করা হয়েছে। পক্ষান্তরে পার্লামেন্ট বন্ধ করার জন্য কোভিড-১৯ ইস্যুকে প্রধানমন্ত্রী মহিদ্দিন ইয়াসিন ব্যবহার করেছেন বলে অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। তাদের দাবি, পার্লামেন্টে অনাস্থা ভোট থেকে পালাতে সরকার এসব অজুহাতকে ব্যবহার করছে। অনাস্থা ভোট হলে বর্তমান সরকার খসে পড়বে বলে দাবি করছে বিরোধীরা।
এ বছর প্রথম পার্লামেন্ট অধিবেশন শুরু হয় গত সপ্তাহে। এর আগে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহতার দিকে যাওয়ায় দেশটিতে দেয়া হয় জরুরি অবস্থা। রাজনেতিক কর্মকান্ড রয়েছে স্থগিত। এ অবস্থায় পার্লামেন্টের দিকে অগ্রসর হন বিরোধী দলের প্রায় ১০০ এমপির একটি গ্রুপ। এতে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে নেতৃত্ব দেন দু’বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মাদ ও আনোয়ার ইব্রাহিম। এই দুই নেতার মধ্যকার সম্পর্ক দীর্ঘদিন ধরে কঠিন বিরোধিতার মুখে। তারা গত নির্বাচনে সমঝোতার রাজনীতি করলেও পরে আবার বিরোধ বেড়েছে। গত বছর অভ্যন্তরীণ কলহে তাদের গঠন করা জোটসরকার ভেঙে যায়। তারপর তাদেরকে আর একসঙ্গে দেখা যায়নি।
দুই নেতার মধ্যে ড. মাহাথির মোহাম্মদের বয়স এখন ৯৬ বছর। তিনি ঐতিহাসিক কুয়ালালামপুর স্কোয়ারে সাংবাদিকদের বলেন, জনগণ তার (মুহিদ্দিন) নিন্দা জানালেও তিনি লজ্জাজনকভাবে পদে রয়েছেন এবং পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন। অন্যদিকে আনোয়ার ইব্রাহিম বলেছেন, বৈধতা হারিয়েছে মুহিদ্দিনের সরকার। পার্লামেন্টে এখন তার সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন নেই। আমরা এই বিক্ষোভে এসেছি, কারণ আমরা জনগণকে সুরক্ষিত রাখতে চাই।
এ সময় বিক্ষোভে অংশ নেয়া এমপিরা সেøাগান দেন ‘পদত্যাগ কর মুহিদ্দিন’। এ সেøাগান দিতে দিতে তারা শান্তিপূর্ণভাবে পার্লামেন্টের দিকে অগ্রসর হন। কিন্তু পুলিশ তাদেরকে বাধা দিয়ে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। উল্লেখ্য, ১৯৯০-এর দশকে প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় নিজের সরকার থেকে আনোয়ার ইব্রাহিমকে বরখাস্ত করেন মাহাথির মোহাম্মদ। এর পরপরই সমকামিতা এবং ক্ষমতার অপব্যবহারের মামলায় তাকে জেল দেয়া হয়।
২০১৮ সালের ঐতিহাসিক নির্বাচনে তারা বিরোধী দলের একটি জোট গঠন করেন। তাতে ঐতিহাসিক বিজয় অর্জন করেন তারা। প্রধানমন্ত্রী হন মাহাথির মোহাম্মদ। দুই বছর এ পদে থাকার পর ক্ষমতা আনোয়ার ইব্রাহিমের কাছে হস্তান্তরের চুক্তি হয়েছিল তাদের মধ্যে। কিন্তু তার আগেই দলে আভ্যন্তরীণ কলহে জোট ভেঙে যায়। নিজের দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে প্রধানমন্ত্রী হন মুহিদ্দিন ইয়াসিন। তার পদত্যাগের আহŸানে দেশটির রাজনীতি আবার উত্তাল হয়ে উঠেছে। পার্লামেন্টকে ভুলপথে নিয়ে যাওয়ার জন্য মুহিদ্দিন প্রশাসনকে তিরস্কার করেছেন মালয়েশিয়ার রাজা। শনিবার সরকার বিরোধী বিরল বিক্ষোভ করেছেন কয়েক শত মানুষ।
একদিনে করোনায় রেকর্ড মৃত্যু
এদিকে মালয়েশিয়ায় করোনায় একদিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল এ সংখ্যা দাঁড়িয়ে ২১৯-এ। সব মিলিয়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ৪০৩ জনের। মন্ত্রণালয় বলছে, এ সময়ে দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৭৬৪ জন। সব মিলিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লাখ ৪৬ হাজার ১৮৬ জন। সূত্র : এএফপি ও রয়টার্স।

 



 

Show all comments
  • Jobaer Mahmud Saikot ৩ আগস্ট, ২০২১, ১:০৯ এএম says : 0
    মাহাথির মোহাম্মদ ও আনোয়ার ইব্রাহিম জোট বেঁধে ক্ষমতায় এলেও মাহাথির প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী দু বছর পর আনোয়ারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন নি। পরবর্তীতে তারই দলের আরেক নেতা ইয়াসিন বিরোধী দলের সাথে আতাত করে জোট বেঁধে ক্ষমতায় আসেন। মাহাথির আর আনোয়ার দুজনই ক্ষমতার বাইরে চলে যান। তৃতীয় পক্ষ হিসেবে ইয়াসিন ক্ষমতা দখল করেন। ক্ষমতা পুনরুদ্ধারে তাই আবার মাহাথির-আনোয়ার মতভেদ ভুলে এক হয়েছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Mujib Hasan ৩ আগস্ট, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    এটাই সত্যিকারের রাজনীতি, রাজনৈতিক ময়দানে মতভেদ থাকতে পারে এজন্য কি একসাথে আসা যাবেনা ? তাদেরকে সেলুট জানাই, প্রতিহিংসা ভুলে একসঙ্গে হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। এমন রাজনীতি আমাদের দেশেও খুব বেশী প্রয়োজন!
    Total Reply(0) Reply
  • Md.Imran Farook Himel ৩ আগস্ট, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    মুহিউদ্দিন না হাটলে কি করনীয়?
    Total Reply(0) Reply
  • Khan Raju ৩ আগস্ট, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    মালয়েশিয়ার উন্নতির একমাত্র কারণ, তারা সবসময় এক থাকে।
    Total Reply(0) Reply
  • M Kamrul Islam Sumon ৩ আগস্ট, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    In this World Mahathir Muhammad is only one piece,Allah gifted for
    Total Reply(0) Reply
  • মিয়া আবদুল হান্নান ৩ আগস্ট, ২০২১, ১০:০৭ এএম says : 0
    গত বছর ২০২০ সালের ২০ মার্চ শুক্রবার জুমআ নামাজের পূর্বে মহিউদ্দিন ইয়াসিন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দ্বায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করেন, মরণঘাতী মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সংক্রমণের কারণে সারা বিশ্বের ন্যায় মালয়েশিয়ায় কোভিড -১৯ এর অভাব অনটন দেখা যায়, বাড়তে থাকে মৃত্যুর মিছিল একের পর এক লকডাউন নিয়ে দেশ অচল হয়ে পড়ে।প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন উপর নাখোশ হতে থাকে জনগণ, সেই সাথে হেভিওয়েট নেতা সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ ও আনোয়ার ইব্রাহীম ঐক্য প্রক্রিয়া গড়ে তোলেন গতকাল ২ আগষ্ট ২০২১ সোমবার পার্লামেন্টের ভিতর বাইরে বিক্ষোভ মিছিল প্রতিবাদ সমাবেশ করতে থাকে। গড়াতে থাকে কুয়ালালামপুর মালয়েশিয়ার জনগনের ভাগ্যের চাকা, উত্থান পতনের খেলা কে হারে কে জিতে বুঝা যাবে কয়েক মাসের মাঝেই। আমাদের দে-শ বাংলাদেশ তার উল্টো বিরোধী দল নেই, রাজনৈতিক অঙ্গনে অশান্তি আন্দোলনের বালাই নেই।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়ায়

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ