Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

দাবানল অঞ্চল থেকে ১০ হাজার মানুষকে সরিয়েছে তুরষ্ক

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ আগস্ট, ২০২১, ১১:২০ এএম

ক্রমেই দুর্বল হচ্ছে তুরস্কের দাবানল। বোদরুম সমুদ্র সৈকত রিসোর্টের কাছে দাবানল ছড়িয়ে পড়ার ফলে স্থানীয় বাসিন্দা সেলচুক শানলি তার দুটি গরুকে ছেড়ে দেন। তারপর পরিবারের সবচেয়ে মূল্যবান জিনিসপত্র একটি গাড়িতে রেখে বাধ্য হয়ে বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে হয়। শানলি হলেন দাবানল থেকে পালানো হাজার হাজার মানুষের একজন। এই দাবানলের ফলে ঘন হলুদ আভায় ঢেকে যায় সেখানকার আকাশ।

সোমবার টানা ষষ্ঠ দিনের জন্য দমকলকর্মীরা তুরস্কের সমুদ্র সৈকতের কাছে দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনতে লড়াই করছে। প্রবল বাতাস এবং উচ্চ তাপমাত্রার কারণে বুধবার থেকে শুরু হওয়া এই দাবানলে অন্তত আটজন লোক মারা গেছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা এবং পর্যটকরা ছোট ছোট নৌকা, গাড়ি এবং ট্রাকের বহর যোগে রিসোর্ট ছেড়ে পালিয়ে যায়। অনেক গ্রামবাসী তাদের বাড়িঘর এবং গবাদি পশু হারিয়েছে, প্রচণ্ড ধোঁয়ার মধ্যে তাদের শ্বাস নিতে কষ্ট হয়েছে।

মারমারিসের মেয়র মোহাম্মদ ওকতায় বলেন, দুটি স্থানে এখনো আগুন জ্বলছে এবং অনুমান করা হচ্ছে যে ১১ হাজার হেক্টর বনাঞ্চল পুড়ে গেছে। সোমবার, একটি আগুন হিসারোনু গ্রামে পৌঁছে যায়। এ সময় সেখানে বেশ কয়েকটি ঘর-বাড়ি পুড়ে যায় এবং পাহাড়ের ঢাল বেয়ে আগুন রাস্তার দিকে নেমে এলে পুলিশ অ্যাম্বুলেন্স ক্রু এবং সাংবাদিকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয়।

ওকতায় হবার্টর্ক টেলিভিশনকে বলেছেন, ‘আমাদের ফুসফুস গত পাঁচ দিন ধরে জ্বলছে’।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফখরুদ্দিন কোজা বলেছেন, অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত কমপক্ষে ২৭ জন মানুষ এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন এবং শত শত মানুষকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে এবং চিকিৎসা শেষে অনেককে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

দক্ষিণ ইউরোপ জুড়ে একটি তাপপ্রবাহ, উত্তর আফ্রিকা থেকে আসা উত্তপ্ত বাতাসের সহায়তায় ভূমধ্যসাগর জুড়ে দাবানলের সৃষ্টি করেছে। ফলে ইতালি এবং গ্রিসসহ ওই এলাকার মানুষকে আগুনের হাত থেকে বাঁচাতে সমুদ্রপথে সরিয়ে নেয়া হয়।
সূত্র : ভয়েস অফ আমেরিকা



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তুরস্ক


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ