Inqilab Logo

শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ব্রাজিলের নায়ক সান্তোস

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ আগস্ট, ২০২১, ১২:০০ এএম

২০২০ টোকিও অলিম্পিকে সোনা জয়ের জন্য ব্রাজিলকে পেরুতে হবে স্পেন বাধা। গতকাল প্রথম সেমিফাইনালে টাইব্রেকারে মেক্সিকোকে ৪-১ ব্যবধানে হারিয়ে আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল ২০১৬ রিও অলিম্পিক জয়ীরা। পরের ম্যাচে স্বাগতিক জাপানকে কাঁদানো স্পেন চ্যালেঞ্জ জানাবে সেলেসাওদের। গতকাল সেমিফাইনালে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ের খেলা গোলশ‚ন্য ড্র ছিল। ফল নিষ্পত্তির জন্য গড়ানোর টাইব্রেকারে মেক্সিকোকে ৪-১ গোলে হারিয়ে সোনার মঞ্চে উঠেছে ব্রাজিল।
নির্ধারিত ৯০ মিনিটে ব্রাজিলকে গোল করতে দেয়নি মেক্সিকো। অতিরিক্ত সময়েও কেউ লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি। কিন্তু টাইব্রেকারে এসে গত অলিম্পিকের সোনাজয়ীদের আর আটকানো যায়নি। অলিম্পিক ফুটবলের ইতিহাসে টানা তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে ব্রাজিল। টোকিওতে প্রথম সেমিফাইনালে সেলেসাওরা টাইব্রেকারে ৪-১ গোলে মেক্সিকোকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে।
টাইব্রেকারে এদুয়ার্দো অ্যাগুয়েরের প্রথম শটটি ঠেকিয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক সান্তোস। পরের শটে জোহান ভাসকেসের শট ফিরে আসে বারপোস্টে লেগে। ফলে শুরুতেই কোণঠাসা মেক্সিকো। এরপর একবার লক্ষ্যভেদ করলেও নিখুঁত স্পট কিক নিয়ে চারটি শটই জালে পাঠায় ব্রাজিল। তাতে টাইব্রেকারে মেক্সিকোকে হারিয়ে টোকিও অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালের টিকেট কেটে নেয় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরাই। ২০১২ সালের পর আবারও ফাইনালে ওঠার সুযোগ থাকলেও মেক্সিকো তা কাজে লাগাতে পারেনি। বরং আন্দ্রে জারদাইনের দল ভাগ্য পরীক্ষায় জিতে আবারও সোনা জয়ের দ্বারপ্রান্তে।
কাসিমা সকার স্টেডিয়ামে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণেও এগিয়ে ছিল ব্রাজিল। কিন্তু কোনও সময় প্রতিপক্ষের গোলকিপার ওচোয়ার দৃঢ়তায়, আবার নিজেদের ব্যর্থতায় গোল পাওয়া হয়নি। যদিও টাইব্রেকার ভাগ্য ব্রাজিলের পক্ষেই ছিল। তাই তো টানা তৃতীয়বার ফাইনালে উঠে দ্বিতীয়বার সোনার স্বপ্ন দেখছে ব্রাজিল।
দিনের আরেক ম্যাচেও টাইব্রেকারের আশা জাগিয়েছিল জাপান। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ে খেলা চলেছিল সমানে সমানে। যদিও বল পজিশনে বরাবরই এগিয়ে ছিল স্পেন। এরপর অতিরিক্ত সময়ে গড়ায় ম্যাচটি। অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধেও কোন দলই পায়নি জালের দেখা। অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধে জাপান চেপে ধরেছিল স্পেনকে। কিন্তু গোলের দেখা পায়নি স্বাগতিক দল। এরপরই হঠাৎ ছন্দপতন ঘটে জাপানের। এরই সুযোগে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করে দলকে সোনা জয়ের লড়াইয়ে নিয়ে যান মার্কো এসনসিও। এরপরও চেষ্টা চালিয়েছিল জাপান। কিন্তু কাজের কাজটা হয়নি।
৬ আগস্ট মেক্সিকো ও জাপান মুখোমুখি হবে বোঞ্জ জয়ের লড়াইয়ে। আর তার একদিন পরেই ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে স্পেন। সোনার লড়াইয়ে দু’দলই ইতিপূর্বে জিতেছে একটি করে সোনা। তাই যে দলই সোনা জিতুক না কেন, তারা নাম লেখাবে আর্জেন্টিনা, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন (বর্তমানে রাশিয়া) ও উরুগুয়ের পাশে। তাদের প্রত্যোকেরই দু’টি করে সোনা আছে এই ইভেন্টে। আর সর্বোচ্চ তিনটি সোনা আছে হাঙ্গেরি ও গ্রেট ব্রিটেনের। তাদেরও আছে সুসংবাদ। এবারের আসরে অন্তত তাদের পাশে বসতে পারছে না কেউ।
এক নজরে ফল
মেক্সিকো ০(১)-(৪)০ ব্রাজিল
জাপান ০-১ স্পেন

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অলিম্পিক

৭ আগস্ট, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ