Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

ধামরাইয়ে আবাসন প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১১ কর্মকর্তা কর্মচারী গ্রেফতার

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৫ আগস্ট, ২০২১, ৩:১৫ পিএম

ঢাকার ধামরাইয়ে কুল্লা ইউনিয়ন এলাকায় ২ ও ৩ ফসলি কৃষি জমিতে অনিয়মত্রান্তিকভাবে বালু ভরাট করে আকসির নগর নামের একটি আবাসন প্রকল্প গড়ে তুলা হচ্ছে। এ আবাসন প্রকল্পের বিরুদ্ধে জমিদখল ,মাটিভরাট ও মারধরের ঘটনা নিয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিক্তিতে ১১ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ধামরাই থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে ।

১১ জনকে আটকদের পর ওই এলাকার নিরযাতিত ভূক্তভোগীরা আবাসন প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তৌহিদুল ইসলামকে প্রধান আসামী করে ধামরাই থানায় ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বিভিন্ন ধারায় মামলাও দিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে আটককৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটকদের মধ্যে রয়েছ্ আকসির নগর আবাসন প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তৌহিদুল ইসলামের খালাতো ভাই সোহাগ মিয়া, আমিনুল,নাছির উদ্দিন, সুমন হোসেন, রফিকুল ইসলাম, রাসেল, আলমগীর হাওলাদার, নান্নু শেখ,মাসুদ রানা, হোসাইন,রাসেলসহ ১১জন।

কয়েকটি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা কুল্লা ইউনিয়নের কাইজারকুন্ড, মাখুলিয়া, মামুরা, বড় কুশিয়ারা এলাকার বাসিন্দাদের নামেমাত্র কৃষি জমি ক্রয় করে বালু ভরাট করে আবাসন প্রকল্প গড়ে তুলেছে সাভারের ব্যাংক কলোনির তৌহিদুল ইসলাম গং।

ক্রয়কৃত জমিতে মাটি ভরাটের সময় তাদের প্রতি্বশীদের জমিতেও ক্রয় ছাড়াই মাটি ভরাট করা হচ্ছে। এতে বাধা প্রদান করলেই জমির মালিকসহ প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে ভাংচুর, চাঁদবাজি, চুরি, হত্যা চেষ্টাসহ বিভিন্ন ধারায় প্রায় ডজন খানেক মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ রয়েছে আকসির নগর আবাসন প্রকল্প কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। শুধু মামলা নয়, তাদের ওপর হামলা চালিয়ে ভঞ্জন রায় নামের একজনের পা ভেঙ্গে দেওয়া হয় গত ফেব্রুয়ারীতে। ভঞ্জন রায় চারমাস পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে কিছুদিন পূর্বে বাড়ি ফেরেন। তাকেসহ ১২ জনকে আসামি করে গত বৃহস্পতিবার থানায় মামলা দায়ের করে আকসির নগর আবাসন কর্তৃপক্ষ। আনোয়ার হোসেন নামের একব্যাক্তি বলেছেন, তাদের ৫ভাই ৪ ভাতিজার নামেও কয়েকটি মিথ্যা মামলা দিয়েছে আকসির নগর আবাসন কর্তৃপক্ষ। গ্রেফতার ও হামলার ভয়ে বেশ কয়েকদিন পুরাতর কবরে আশ্রয়ও নিয়েছে।
মাখুলিয়া গ্রামের বদরুল সরদার বদির জানান অবৈধ আকসির নগরের কাজ বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেয়ায় তার বিরুদ্ধেও মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে।
স্থানীয় চেয়ারম্যান কালীপদ সরকারের সাথে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি কিছুই বলেননি।

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বক্তব্য দেয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ