Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

ইউনাইটেড হসপিটালের বিশ্ব হার্ট দিবস পালন সচেতনতার অভাবে বাড়ছে হৃদরোগে মৃত্যুর হার

প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : পৃথীবিতে প্রতিদিনই বাড়ছে হৃদরোগের কারণে মৃত্যুর হার। যদিও উন্নত দেশে এর হার কমতে শুরু করেছে কিন্তু অল্প ও মধ্যম আয়ের দেশে এই রোগে মৃত্যুর হার বাড়ছে। শুধুমাত্র সচেতনতার অভাবে বাংলাদেশেও এই রোগে আক্রান্তের হার বাড়ছে। গত বৃহস্পতিবার ‘পাওয়ার অফ লাইফ’ সেøাগানে দেশের অন্যান্য স্থানের মতো ইউনাইটেড হসপিটালে বিশ্ব হার্ট দিবস পালন করা হয়েছে। হসপিটালের আয়োজনে এক জনসচেতনতামূলক সেমিনারে বিশেষজ্ঞরা এসব কথা বলেন। হৃদরোগ প্রতিরোধে করণীয় ও দেশের সকল হৃদরোগীদের সুস্থতা কামনা করে বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে দিনটিকে উদযাপন করা হয়। ছিলো- পক্ষকালীন ¯েপশাল হার্ট স্কিনিং প্যাকেজ-এ বিশেষ ডিসকাউন্ট অফার এবং হাসপাতাল লবিতে হৃদরোগ বিষয়ক প্রশ্নোত্তর বুথ। সকালে স্বাস্থ্য বুথ উদ্বোধন করেন ইউনাইটেড হসপিটালের সিইও মি. নাজমুল হাসান। তিনি বলেন, ইউনাইটেড হসপিটালে এখন পর্যন্ত কার্ডিয়াক কন্সাল্টেশন ২ লক্ষ ২৫ হাজারেরও বেশি, কার্ডিয়াক সার্জারী ৯ হাজারেরও বেশি, ৩৮ হাজারেরও বেশি কার্ডিয়াক প্রসিডিউর, ২৫ লাখেরও বেশি কার্ডিয়াক পরীক্ষাস¤পন্ন হয়েছে। ভবিষ্যতে আমাদের সেবার ধারা অব্যাহত থাকবে।
বিশেষ জনসচেতনতামূলক সেমিনারে সাবেক নির্বাচন কমিশনার ড. এ টি এম নাজমুল হুদা, নায়ক রাজ রাজ্জাক, সেলিম গাফফার, মেজর জেনারলে প্রফেসর এ আর খান (অব.), সরকার ফিরোজ উদ্দিন (সিইও এটিএন নিউজ), আব্দুস সোবহান (এমডি অকোটেক্স গ্রæপ), আমিনুল আকবার (সিইও ও এমডি ইউনমার্ক গ্রæপ) প্রমুখসহ আরও অনেক মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, ব্যবসায়ী, সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।
সেমিনারে হসপিটালের হৃদরোগ বিভাগের কনসালটেন্ট ও স্বনামধন্য হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. এম মোমেনুজ্জামান তার বক্তব্যে বলেন, হৃদরোগ প্রতিরোধে সকলকেই সচেতন হতে হবে যেমন- ধূমপান বর্জন, প্রচুর শাকসব্জি ও ফলমূল খাওয়া, তেল চর্বিযুক্ত খাবার কম খাওয়া, ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা, ওজন কমানো, মানুষিক চাপমুক্ত থাকা ও প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট কায়িক শ্রম বা হাঁটাচলা করা।
ইউনাইটেড হসপিটালের চিফ কার্ডিয়াক সার্জন ও ডিরেক্টর কার্ডিয়াক সেন্টার ডা. জাহাঙ্গীর কবির বলেন, হৃদরোগকে ভয় না পেয়ে হৃদরোগ সমন্ধে অমাদের সকলকে জানতে হবে এবং সচেতন হতে হবে। সকলে যদি হৃদরোগ সম্বন্ধে সচেতন হয় তাহলে আমাদের দেশের হৃদরোগীর সংখ্যা কমে আসবে। তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে হৃদরোগের সব রকম চিকিৎসা ও হার্ট সার্জারি হয়ে থাকে যা আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন এবং অবশ্যই বিদেশের তুলনায় অনেক কম খরচে। এছাড়াও বিশ্ব হার্ট দিবসে বিশেষ জনসচেতনতামূলক সেমিনারে বক্তব্য রাখেন হৃদরোগ বিভাগের কনসাল্টেন্ট ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ফাতেমা বেগম এবং ডা. কায়সার নাসরুল্লাহ খান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ