Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে নির্যাতন ও বসতঘরে হামলা-ভাঙচুর-লুটপাটের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ২ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রাজাপুর (ঝালকাঠি) উপজেলা সংবাদদাতা

ঝালকাঠির রাজাপুরের আঙ্গারিয়া গ্রামে ঘরে ঢুকে মোসাঃ মনিরা বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূকে অমানুষিক নিযার্তন এবং বসতঘরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার বিকেলে ওই গৃহবধূর স্বামী মোঃ নজরুল ইসলাম রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করলে চিকিৎসাধীন ওই গৃহবধূকে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে দেখে নির্যাতনের সত্যতা পেলেও মামলা রেকর্ড বা হামলাকারীদের গ্রেফতার করেনি পুলিশ। দ্রুত মামলা রেকর্ডপূর্বক হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে নজরুল ইসলাম অভিযোগ করে জানান, গত ২৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে একই বাড়ির ফোরকানের স্ত্রী মোসাঃ নাজমা বেগমের সাথে মনিরা বেগমের কথার কাটাকাটির জের ধরে বসত ঘরের সামনের দরজা ভেঙে প্রতিপক্ষ আল ইমরান, ফারুক তালুকদার, ফোরকান তালুকদার, মোঃ মামুন, নাজমা বেগম, হাছিনা বেগম ও ময়না বেগম একদল ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে মনিরা বেগমের চুল ধরে বিছানা থেকে টেনে-হেঁচড়ে ঘরের মেঝেতে ফেলে বিবস্ত্র করে মধ্য যুগীয় কায়দায় অমানুষিক নির্যাতন করে। এসময় মনিরার গলার স্বর্ণের চেইন, ২টি রুলি, কানের দুল এক জোরা, ঘরে থাকা ১০ হাজার টাকাসহ মালপত্র লুটপাট করে। পরে তার ৮ বছরের কন্যা সন্তানের চিৎকারে প্রতিবেশীরা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য জরুরী বিভাগে নিয়ে যায়। কিন্তু প্রতিপক্ষরা জরুরী বিভাগে চিকিৎসারত অবস্থায় পুনরায় উক্ত সন্ত্রাসীরা তাকে মেরে ফেলার জন্য হাসপাতালে হামলা চালায়। রাজাপুর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গিয়াস জানান, অভিযোগ পেয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নারী পুলিশ কর্মকর্তা গিয়ে ওই গৃহবধূকে নির্মমভাবে মারধরের সত্যতা পেয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রস্তুতি চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে নির্যাতন ও বসতঘরে হামলা-ভাঙচুর-লুটপাটের অভিযোগ
আরও পড়ুন