Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০২ আষাঢ় ১৪২৮, ০৪ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

পাকিস্তানি শিল্পীদের বহিষ্কার নিয়ে বিভক্ত বলিউড

প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ভারতের কাশ্মীরে ১৮ ভারতীয় সেনা নিহত হবার পর পাকিস্তানের সঙ্গে দেশটির চরম উত্তেজনাকর পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে। দুই দেশের সরকারের মধ্যে যেমন উত্তেজনা তার পুরোটাই আবিষ্ট করে রেখেছে দুই দেশের সাধারণ মানুষকে। এই বিরোধের আঁচ এসে লেগেছে দুই দেশের বিনোদন জগতেও। মুম্বাইয়ের চলচ্চিত্রাঙ্গনে কাজ করেন বেশ কিছু পাকিস্তানি শিল্পী। এছাড়া বিভিন্ন কনসার্টেই পাকিস্তানি শিল্পীরা অংশ নিয়ে থাকেন। তারাই এই বিরোধের লক্ষ্যতে পরিণত হয়েছেন।
মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা (এমএনএস) নামে এক সংগঠন ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কয়েকজন পাকিস্তানি অভিনয়শিল্পী আর সঙ্গীতশিল্পীর বহিষ্কার দাবি করে। এরা বিশেষ করে অভিনেতা ফাওয়াদ খান, অভিনেত্রী মাহিরা খান, অভিনেতা-গায়ক আলি জাফর, গায়ক আতিফ আসলাম এবং গায়ক রাহাত ফতেহ আলি খানকে ভারত থেকে বের করে দেবার দাবি করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার প্রডিউসার্স’ অ্যাসোসিয়েশন স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসা পর্যন্ত তাদের প্রতি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। পরিস্থিতি অনুক‚ল নয় বুঝতে পেরে পাকিস্তানী সব বিনোদন কর্মী ভারত ত্যাগ করে। এর ফলে বলাই বাহুল্য সেই শিল্পীদের যতটা না তার চেয়ে ভারতীয় উদ্যোক্তারাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।
এদিকে জি নেটওয়ার্ক পাকিস্তানি সিরিয়াল প্রচারকারী জি জিন্দেগি চ্যানেলটি সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তানও ভারতীয় সব চলচ্চিত্র প্রদর্শন বন্ধ করে দিয়েছে।
বলিউডের তরকারাও কিন্তু এ নিয়ে বিভক্ত হয়ে পড়েছে।
সালমান খান বিষয়টি সহজভাবে নেননি। তিনি বলেন : “পাকিস্তানের শিল্পীদের সন্ত্রাসবাদীর মত চিহ্নিত করা উচিত নয়। শিল্প আর সন্ত্রাসবাদকে এক করা অনুচিত।”
শাহরুখ খান বিশেষ করে ফাওয়াদ খানের পক্ষ নিয়ে বলেছেন : “প্রতিভার কোনও সীমান্ত হয় না। রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে ফাওয়াদ খানকে আক্রমণ করা অনাকাক্সিক্ষত।”
সোনালি বেন্দ্রে বলেছেন : “শিল্পীদের সঙ্গে বিশাল ব্যবসা জড়িত। যদি পাকিস্তানের সঙ্গ ব্যবসার সম্পর্ক বন্ধ করতে হয় তাহলে সব ব্যবসা বন্ধ করতে হবে।”
গীতিকার কবি জাভেদ আখতার বলেছেন : “জাতির বর্তমান আবেগের কথা বিবেচনা পাকিস্তানি শিল্পীদের চলচ্চিত্র ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থেকে প্রত্যাহার করা অপরিহার্য।”
অনুপম খের বলেছেন : “পাকিস্তানি শিল্পীদের ভারতীয়দের ওপর আক্রমণের নিন্দা করতে হবে।”
লন্ডনে জন্মগ্রহণকারী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত গায়ক আদনান সামি এখন পুরো ভারতীয় নাগরিক। তিনি টুইটারের মাধ্যমে ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রশংসা করায় পাকিস্তানিদের রোষানলে পড়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তানি শিল্পীদের বহিষ্কার নিয়ে বিভক্ত বলিউড
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ