Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

যুক্তরাষ্ট্র মানবাধিকারের রক্ষক নয়, ভক্ষক

চায়না মিডিয়া গ্রুপের সম্পাদকীয়

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০২১, ১২:০১ এএম

যুক্তরাষ্ট্র নিজেকে ‘মানবাধিকারের রক্ষক’ দাবি করে। তবে, কোভিড-১৯ মহামারী যুক্তরাষ্ট্রের নিজস্ব বিশৃঙ্খলা, অশান্তি, এবং সংকটকে বিশ্বের সামনে প্রকাশ করে দিয়েছে। ফলে আমেরিকার মানবাধিকারের মুখোশ উন্মোচিত হয়ে পড়েছে। চায়না মিডিয়া গ্রæপের (সিএমজি) এক সম্পাদকীয়তে এসব বলা হয়।

সম্পাদকীয়তে বলা হয়, সামাজিক অস্থিরতা হলো যুক্তরাষ্ট্রের একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ। কোভিড-১৯ মহামারীতে রোগটি আরো গুরুতর হয়েছে। চলতি বছর যুক্তরাষ্ট্রে হিংস্র অপরাধের ঘটনা ঘনঘন ঘটেছে। অসম্প‚র্ণ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২০ সালে ৬১৪ বার গুলিবর্ষণের ঘটনায় ৫২১ জন নিহত হয়েছে। গত জুলাই পর্যন্ত চলতি বছর ৪১০ বার গুলিবর্ষণের ঘটনায় ৪৩৭ জন নিহত হয়েছে। তার মানে, যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন দুই বারের বেশি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

সম্পাদকীয়টির মতে, অপরাধ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ ২ কোটি ৩০ লাখ ছাড়িয়ে যায়। তা ২০১৯ সালের চেয়ে ৮০ শতাংশ বেশি। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র অপরাধের হারের দিক দিয়ে উন্নত দেশগুলোর মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে। দীর্ঘ সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্রে সংখ্যালঘুদের প্রতি সহিংসতা, বৈষম্য এবং অন্যায় আচরণ করে আসছে। মার্কিন জাতীয় সংস্থার ‘এশিয়ান-বিরোধী ঘৃণা বন্ধ’ শীর্ষক এক পরিসংখ্যানে বলা হয়, গত মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত সময়ে যুক্তরাষ্ট্রে সংখ্যালঘুদের সব ধরণের মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে।
আরো উদ্বেগজনক বিষয় হলো যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলা। মার্কিন সরকার মহামারী প্রতিরোধ ব্যর্থ হয়েছে। অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার দুর্বল হচ্ছে। সামাজিক অস্থিরতা বেড়েছে। বিভিন্ন কারণে মার্কিন জনগণের জীবনে প্রচÐ চাপ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সারা বিশ্ব বলছে, যুক্তরাষ্ট্র ‘মানবাধিকারের রক্ষক’ নয়, বরং সবচেয়ে বড় ভক্ষক। সূত্র : রেডিও চায়না বাংলা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আমেরিকা


আরও
আরও পড়ুন