Inqilab Logo

শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

শরৎকালীন ছুটি বাতিলে প্রধান বিচারপতিকে অনুরোধ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০২১, ১০:২২ পিএম

শরৎকালীন ছুটি বাতিল এবং পরবর্তী বছরগুলোতে ছুটি কমানোর আবেদন জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বরাবর এ আবেদন জানান বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার রূহুল কুদ্দুস কাজল।
সমিতির প্যাডে পাঠানো আবেদনে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন পর আগামী ২২ আগস্ট, ২০২১ থেকে হাইকোর্ট বিভাগে আগাম জামিন শুনানির এখতিয়ার পুনর্বহাল করার জন্য আপনাকে মুবারকবাদ জানাচ্ছি। আমরা সকলেই অবগত আছি যে, বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রভাবে সুপ্রিম কোর্টসহ দেশের সব আদালতের বিচারিক কার্যক্রম দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ৫ এপ্রিল, ২০২১ থেকে আদালতের স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হয়ে আসছে। দেশব্যাপী জারিকৃত লকডাউন শিথিল হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে গত ১১ আগস্ট, ২০২১ থেকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে হাইকোর্ট বিভাগের আদালতগুলো পরিচালিত হচ্ছে। করোনাকালে দীর্ঘদিন সুপ্রিম কোর্ট বন্ধ থাকলেও সরকারি অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বিশেষত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কার্যক্রম বন্ধ ছিল না। ফলে লকডাউনেও বিচার প্রার্থী মানুষ পুলিশি হয়রানি ও অনেকাংশে প্রশাসনিক নিগ্রহের শিকার হয়েছেন। কিন্তু দেশব্যাপী আদালতের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বিচার প্রার্থীরা আইন-আদালতে আশ্রয় লাভের সাংবিধানিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। দীর্ঘদিন আদালত বন্ধ/সীমিত পরিসরে চালু থাকায় শুধুমাত্র ন্যায় বিচারই লঙ্ঘিত হয়নি, অনিষ্পন্ন মামলার সংখ্যাও বেড়েছে। এ পরিস্থিতিতে অত্র সমিতি মনে করে, ২০২১ সালের বাকি সময়ের ক্যালেন্ডারভুক্ত সব অবকাশকালীন ঐচ্ছিক ছুটি বাতিল করে এবং পরবর্তী বছরগুলোর ছুটি কমিয়ে এনে এ ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নেয়া সম্ভব।
আবেদনে আরো বলা হয়, গত বছর করোনাকালের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে অত্র সমিতির পক্ষ থেকে ৮ জুলাই মহাত্মন বরাবর পাঠানো এক আবেদনে বছরের বাকি ছুটি বাতিলের অনুরোধ জানানো হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে ৬ আগস্ট, ২০২০ তারিখে অনুষ্ঠিত সুপ্রিম কোর্টের ফুল কোর্ট সভায় বছরের বাকি ছুটি বাতিলের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এ সিদ্ধান্ত বিজ্ঞ আইনজীবী, বিচারপ্রার্থী মানুষ ও সর্ব মহলে প্রশংসিত হয়েছিল। এবারও সবাই অনুরূপ সিদ্ধান্ত প্রত্যাশা করে।
উপরোক্ত অবস্থাধীনে করোনাকালের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে দেশের সব আদালতের জন্য প্রযোজ্য ২০২১ সালের বাকি সময়ের সব শরৎকালীন অবকাশ/ঐচ্ছিক ছুটি বাতিল ও পরবর্তী বছরগুলোতে ছুটি কমিয়ে আনার জন্য বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শরৎকালীন ছুটি
আরও পড়ুন