Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

কারবালার ইতিহাস অধ্যয়ন করা ও মানুষের মধ্যে সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা আমাদের কর্তব্য -মুহাম্মদ দুলাল আহমদ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ আগস্ট, ২০২১, ৭:০৪ পিএম

বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ দুলাল আহমদ বলেন, কারবালার ঘটনা নিছক এক ঐতিহাসিক ঘটনা নয় বরং ত্যাগের সর্বোৎকৃষ্ট নিদর্শন। রাসূল (সা.) এর দৌহিত্র সায়্যিদুনা হুসাইন (রা.) এর সাথে যে নির্মম আচরণ করেছে ইয়াজিদ বাহিনী তা মুমিন মাত্রই জানেন। ইতিহাস তালাশ করলে পাওয়া যায়, সায়্যিদুনা হুসাইন (রা.) সত্য প্রতিষ্ঠার জন্য তাঁর পবিত্র শির মুবারক কুরবানি দিয়েছেন কিন্তু বাতিলের কাছে আপোষ করেননি। আমাদের জন্য কারবালার ঘটনা থেকে সবচেয়ে বড় শিক্ষা হলো, সত্যের পক্ষে সর্বদা আপোষহীন থাকা।

বর্তমান সময়ে ঐতিহাসিকভাবে সুবিদিত এই ত্যাগের ইতিহাসকে বিকৃত করে নব্য ইয়াজিদ প্রেমীরা ইয়াজিদকে নির্দোষ সাব্যস্ত করতে উঠেপড়ে লেগেছে; এমনকি তার অনেক বানোয়াট বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করা হচ্ছে, যা কোনো সূত্রেই প্রমাণিত নয়। এজন্য কারবালার ইতিহাস অধ্যয়ন করা, আলোচনা করা ও মানুষের মধ্যে সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা আমাদের কর্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে হুসাইন (রা.) বিরোধী সকল অপপ্রচার ও কারবালার প্রকৃত ইতিহাসের বিকৃতি রুখে দিতে তালামীযে ইসলামিয়ার কর্মীবৃন্দসহ সবাইকে আহ্বান জানান।
২২ আগস্ট, রবিবার, বিকাল ৩টায় সিলেট নগরীর অভিজাত একটি রেস্তোরাঁয় বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া সিলেট মহানগর আয়োজিত ‘কারবালা ও আশুরা : তাৎপর্য ও শিক্ষা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
শাখা সভাপতি এস এম মনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পিয়ার হাসান ও সহ-সাধারণ সম্পাদক কাওছার হামিদ সাজুর যৌথ সঞ্চালনায় সেমিনারে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুজতবা হাসান চৌধুরী নুমান।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুজতবা হাসান চৌধুরী নুমান বলেন, আহলে বাইতের সদস্যদের মুহাব্বাত করার জন্য কুরআন-সুন্নাহ’য় বিশেষভাবে নির্দেশনা রয়েছে। আহলে বাইতের মুহাব্বাতের মাধ্যমে প্রকৃতপক্ষে আল্লাহর রাসূল (সা.) কে মুহাব্বাত করা হয়। প্রকারান্তরে আহলে বাইতকে কষ্ট দিলে আল্লাহ ও রাসূল (সা.) কে কষ্ট দেওয়া হয়। আর বেঈমান ও মুনাফিক মাত্রই আল্লাহর রাসূল (সা.) কে কষ্ট দেয়। সুতরাং আহলে বাইতের অন্যতম মহান সদস্য হুসাইন (রা.) এর সাথে নিকৃষ্টতর বেয়াদবি যারা করেছে সেই ইয়াযিদকে নির্দোষ প্রমাণের হীন চেষ্টা ইসলামি পোশাকে মুনাফিকি ছাড়া কিছু হতে পারে না। আমাদের উচিত আহলে বাইতকে মুহাব্বাত করা ও এসব মুনাফিকদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো।
শাখা সাংগঠনিক সম্পাদক এম. শামছ উদ্দিনের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সূচিত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা নজমুল হুদা খান, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আনজুমানে আল ইসলাহ ইউকে’র সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা কয়েছুজ্জামান, সিলেট মহানগর আল ইসলাহ’র সাধারণ সম্পাদক আজির উদ্দিন পাশা, সংগঠনের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুহাম্মদ মুহিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মনজুরুল করিম মহসিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান ফরহাদ, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, সিলেট (পূর্ব) জেলা সভাপতি ইসলাম উদ্দিন চৌধুরী ও জেদ্দা আল ইসলাহ’র সভাপতি মো. শামসুল ইসলাম।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শাখা সহ-সভাপতি মো. আতিকুর রহমান সাকের, মারুফ আহমদ, মিনহাজুল ইসলাম নিয়াজ, আশিকুর রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক হোসাইন আহমদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আজাদ হোসাইন, প্রচার সম্পাদক আরিফ হোসেন সামাদ, সহ-প্রচার সম্পাদক এইচ কে এম নোমান, অর্থ সম্পাদক সায়েম ইবনে খায়ের, অফিস সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, সহ-অফিস সম্পাদক রাকিবুর রহমান, আব্দুল কাইয়ুম সিদ্দিকী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক আরিফ মাহমুদ জামি, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক এফ কে জুনেদ আহমদ, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক গুলজার আহমদ, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক রেদওয়ান মাহমুদ চৌধুরী, সহ-তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক ময়নুল ইসলাম মুন্না, সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা সভাপতি আফজল হোসেন, হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসা সভাপতি মাহমুদুল হাসান, সিলেট টিটি কলেজ সভাপতি আব্দুল করিম প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ