Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সেনবাগে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর টাইফয়েড চিকিৎসা

নোয়াখালী ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২৪ আগস্ট, ২০২১, ১২:০১ এএম

সেনবাগ উপজেলার সেবারহাট মেডিকেল সেন্টার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ভুল রিপোর্টের কারণে সুজন নামের এক রোগীর মৃত্যুর উপক্রম হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী যুবকের ভাই আবু নুর আহাদ এর প্রতিকার চেয়ে নোয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অভিযোগ নিম্পত্তি শাখায় লিখিত অভিযোগ করেছে।

জানা গেছে, সেনবাগ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের উত্তর মোহাম্মদপুর গ্রামের মাস্টার নুর ইসলামের ছেলে সুজন জ্বরজনিত কারণে অসুস্থ হয়ে পড়লে সেবারহাট মেডিকেল সেন্টারের ডাক্তার মতিউর রহমান রুবেল নামের একজন এমবিবিএস ডাক্তারকে দেখালে তিনি রোগী সুজনের রোগ নির্ণয়ের জন্য টাইফয়েড ও ডেঙ্গু রোগের ডায়াগনস্টিক করার পরামর্শ দেন। ডাক্তারের পরামর্শে রোগীর স্বজনরা তাকে গত ১৯ জুলাই সেবারহাট মেডিকেল সেন্টার নামের একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সুজনের রক্তের নমুনা সরবরাহ করলে সেবারহাট মেডিকেল সেন্টারের প্যাথলজি থেকে (ডায়াগনস্টিক) রিপোর্ট প্রদান করে টাইফয়েড বলে। ওই রিপোর্টের আলোকে ডাক্তার রোগীকে টাইফয়েডের চিকিৎসা শুরু করেন। কিন্তু এতে রোগী সুস্থ না হয়ে আরো অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরবর্তীতে রোগীর স্বজনরা তাকে মুমূর্ষ অবস্থায় জেলা শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানকার ডাক্তার আবারো ওই রোগীকে টাইফয়েড ও ডেঙ্গু পরীক্ষা করাতে বলেন।
এরপর রোগীর স্বজনরা নোয়াখালী পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার লিমিটেডে টাইফয়েড ও ডেঙ্গু পরীক্ষা করালে সেখানে সুজনের শরীরে ডেঙ্গু শনাক্ত হয়। দীর্ঘ এক সপ্তাহ রোগীকে ওই হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা করান। বর্তমানে সুজন কিছুটা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেও সেবারহাট মেডিকেল সেন্টারের ভুল রিপোর্টের কারণে বর্তমানে তার শরীরে বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিয়েছে। রোগীর স্বজনদের অভিযোগ সেবারহাট মেডিকেল স্টোরের ভুল রির্পোটের কারণে রোগীকে টাইফয়েডের চিকিৎসা শুরু করায় রোগীর স্বাস্থ্যের অবনতি প্রাণ সংশয়ের মধ্যে পতিত হয়। এ বিষয়ে সেবারহাট মেডিকেল সেন্টারের মালিক আবুল খায়েরের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি গণমাধ্যম কর্মিদের ভুল রির্পোটের থকার কথা স্বীকার করে জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টাইফয়েড চিকিৎসা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ