Inqilab Logo

সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ফুলপুরে ‘জিনের বাদশা’র খপ্পর থেকে কিশোরীকে রক্ষা করলো পুলিশ

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ আগস্ট, ২০২১, ৪:১৫ পিএম

ময়মনসিংহের ফুলপুর পৌর এলাকার এক কিশোরীকে (১৬) জিনের বাদশার খপ্পর থেকে উদ্ধার করেছে ফুলপুর থানা পুলিশ। সোমবার (২৩ আগষ্ট) রাত সাড়ে ১২টার দিকে বগুড়ার শাহজাহানপুর থানা এলাকা থেকে পুলিশের একটি চৌকস টিম অভিযান চালিয়ে কিশোরীকে উদ্ধার করে। পুলিশের অভিযানে জিনের বাদশার খপ্পর থেকে রক্ষা পেল এই কিশোরী।

জানা যায়, ফুলপুর পৌরসভার দিউ এলাকার এক কিশোরীকে (১৬) ০১৮৩২৩৪৯০৬৯ নাম্বার থেকে জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে মোবাইলে বলে, আমি জিনের বাদশা দরবেশ বাবা বলতেছি। তোর জন্যে একটা সুসংবাদ আছে। আল্লাহ তোর ভাগ্য খুইল্যা দিছে। তোকে স্বর্ণের চাক্কা দিবো। কোটিপতি বানাবো। আল্লাহ তোর ভাগ্যে রাখছে। তুই স্বর্ণপাতি পাবি। কোটিপতি হবি। তুই আমার কথামতো আমার নিকট চলে আয়। দাউদকান্দিতে চলে আয়। যদি না আসিস তাহলে তোর মা-বাবা, ভাই-বোন পরিবারের সবাইকে ধ্বংস করে দিবো। আর তুই যে আসবে কাউকে বলতে পারবে না। পিছনে ফিরে তাকাতে পারবে না। এসব কথা শুনে কোটিপতি হওয়ার স্বপ্নে বিভোর হয়ে মেয়েটি স্বাভাবিক বিচারবিবেচনা হারায়। কাউকে কিছু না বলে সোমবার বিকালে জিনের বাদশার সাথে দেখা করতে’ বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় এই কিশোরী। পরে অভিভাবকরা পুলিশের স্মরণাপন্ন হলে ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুনের নির্দেশনায এস আই ফয়জুর রহমান ও এস আই জাহিদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ফুলপুর থেকে ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল ও সিরাজগঞ্জ হয়ে বগুড়ায় যায়। সেখানে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে শাহজাহানপুর থানা এলাকায় দাউদকান্দিগামী রংপুরের একটি পরিবহন থেকে রাত সাড়ে ১২ টার দিকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে।

ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, প্রথমে আমরা মনে করেছিলাম কোন ছেলে তাকে ভাগিয়ে নিয়ে গেছে। কিন্তু তা নয়। কথিত জিনের বাদশার খপ্পরে পড়ে সে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। তার ভাগ্য ভালো। আমরা তাকে উদ্ধার করতে পেরেছি। হয়তো সে পাচার হয়ে যেতে পারতো। এখন তাকে তার পরিবারের হেফাজতে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। ওসি আরও বলেন, আমরা কথিত জিনের বাদশার আস্তানা খুঁজে বের করার চেষ্টায় আছি। তবে ছেলে-মেয়েদেরকে এসব বিষয়ে আরও সচেতন হতে হবে। লোভ বর্জন করতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ