Inqilab Logo

শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ মুহাররম ১৪৪৪

কয়েক বছর পার হলেও শরণার্থীর সুযোগ-সুবিধাই পাচ্ছেন না তারা

শিক্ষা-চাকরির দাবিতে দিল্লিতে আফগান শরণার্থীদের বিক্ষোভ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ আগস্ট, ২০২১, ১২:০২ এএম

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে বিক্ষোভে নেমেছেন দেশটিতে আশ্রয় নেয়া আফগান শরণার্থীরা। শিক্ষা, চিকিৎসা ও কাজের সুযোগ দেয়ার দাবিতে সোমবার দিল্লির জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর)-এর কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। আগামী ১০ দিন তাদের এই আন্দোলন-বিক্ষোভ চলবে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে। আফগানিস্তানে সংকটজনক পরিস্থিতির কারণে গত কয়েকদিনে কাবুল থেকে ভারতে গিয়েছেন অনেক আফগান নাগরিক। অনেকে আবার বেশ আগে থেকেই দেশটিতে রয়েছেন। কিন্তু কয়েক বছর পার হলেও শরণার্থী হিসেবে ভারতে কোনো সুযোগ-সুবিধাই পাচ্ছেন না তারা। আর এমন অভিযোগেই সোমবার দিল্লিতে ইউএনএইচসিআর-এর দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন আফগান শরণার্থীরা। তাদের অভিযোগ, আফগান শরণার্থীদের অনেকে ৫ বছর ধরে, এমনকি অনেকে ১৫ বছর ধরে ভারতে রয়েছেন। অথচ দেশটিতে শিক্ষা, কাজের সুযোগ এবং চিকিৎসাসহ স্বাস্থ্যের কোনো সুবিধাই তারা পান না। এমনকি অনেকের শরণার্থী কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও সেটা নবায়ন করা হয় না বলেও অভিযোগ উঠেছে। আফগান শরণার্থীদের দাবি, দিল্লিতে তারা শরণার্থী হিসেবে থাকতে পারেন, কিন্তু কাজ করতে পারেন না। ফলে জীবনধারণ করাই সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। অবিলম্বে তাদের কাজের অধিকার দিতে হবে। জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, দিল্লিতে প্রায় ২২ হাজার আফগান শরণার্থী বসবাস করেন। বহু বছর ধরে তারা দিল্লির বাসিন্দা। তালেবান ক্ষমতা দখল করার পর স¤প্রতি আফগানিস্তান থেকে আরও শরণার্থী ভারতে গিয়েছেন। শরণার্থীদের বক্তব্য, আফগানিস্তানের যা অবস্থা, তাতে তারা দেশে ফিরে যেতে পারবেন না। অন্য দেশে শরণার্থী হয়েই থাকতে হবে। কিন্তু সেখানে কাজের অধিকার না পেলে জীবনধারণ করাই অসম্ভব। তাদের অভিযোগ, ভারতে পৌঁছানোর পর জাতিসংঘ কার্যালয় থেকে শরণার্থী কার্ড দেয়া হয়। তবে এই কার্ড দেখিয়ে ভারতে থাকা যায়, কিন্তু কাজের সুযোগ পাওয়া যায় না। শিক্ষা-স্বাস্থ্যের অধিকার থেকেও বঞ্চিত থাকতে হয়। আর তাই অধিকার আদায়ের এই বিক্ষোভে যোগ দিয়েছে আফগান শিশু শরণার্থীরাও। ডয়চে ভেলে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগান শরনার্থী
আরও পড়ুন