Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

পাথরঘাটায় প্রবাসীর স্ত্রীকে প্রতারণা করে ধর্ষণের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০২১, ৬:১২ পিএম

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার কাকাচিড়া ইউনিয়নের এক প্রবাসীর স্ত্রীকে প্রতারণা করে একই ইউনিয়নের বাইনচটকি গ্রামের সাঈদুর রহমানের ছেলে মঠবাড়িয়া টিয়ারখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ শাহিন (৩২) ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী ২৮ আগস্ট পাথরঘাটা প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে লিখিত সংবাদ সম্মেলন করেছেন।


লিখিত অভিযোগে তিনি বলেন, মঠবাড়িয়া টিয়ারখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহিন এবং আমি কাকচিড়া বাজারের ছালেক ও চান্দু মিয়ার পাকা বাড়ির একই ফ্লাটে বসবাস করার সুবাদে এবং আমার স্বামী প্রবাসে থাকায় শিক্ষক শাহিন প্রায় এক বছর পূর্ব থেকে আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এদিকে আমার স্বামী প্রবাসে (সৌদি আরব) গিয়ে আমি ও আমার একমাত্র সাড়ে চার বছরের শিশু সন্তানের খোঁজ খবর না নেওয়ায় আমি তার প্রস্তাবে রাজি হই। পরে শাহিন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেওয়াসহ প্রায় এক বছর পর্যন্ত আমার সাথে নিয়মিত মেলামেশা করে। এক পর্যায়ে শাহিন আমার স্বামীকে ডিভোর্স দিতে বললে আমি তার কথায় সরল বিশ্বাসে রাজি হইয়া গত ২ জুন ২০২১ আমার স্বামীকে ডিভোর্স প্রদানকরি। পরে আমি তার কাছে স্ত্রীর স্বীকৃতি চাইলে তিনি আমায় বিয়ে করবেন বলে সময় ক্ষেপনকরে এক পর্যায়ে আমাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে আমি বাধ্য হয়ে গত ২২ আগস্ট সকালে শাহিনের বাড়িতে গিয়ে বিয়ের দাবিতে অনশন করলে তাদের লোকজন আমি ও আমার মামি এবং আমার খালাতো বোনকে বেদমভাবে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার শালিশ মীমাংসা হলেও শাহিন আমাকে বিয়ে করতে রাজি না হয়ে আমাকে দুই লক্ষ টাকার বিনিময়ে সবকিছু ধামাচাপা দেওয়ার প্রস্তাব দেয়।

ভুক্তভোগী আরো বলেন, আমি সরল বিশ্বাসে শিক্ষক শাহিনের কথায় আমার স্বামীকে ডিভোর্স দিয়েছি। শাহিন এখন আমাকে বিয়ে না করলে আমার আত্মহত্যা ছাড়া আর কোন গতি নাই।

এব্যাপারে শাহিনের মোবাইল বন্ধ থাকায় সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বরগুনা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ