Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

১০ জনের চেলসিতে আটকা লিভারপুল রিয়ালের ত্রাতা কার্ভাহাল লেভান্দোভস্কির হ্যাটট্রিক

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ আগস্ট, ২০২১, ১২:০০ এএম

দুর্ভাগ্য চেলসির। আগে গোল করেও ম্যাচ জিততে পারেনি। শুরু থেকে ভালো খেলতে থাকা লিভারপুল একপর্যায়ে ম্যাচে সমতায় ফেরে। বিরতির পর ১০ জনের চেলসিকে চেপে ধরে ব্যবধান বাড়িয়ে নেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টাও চলতে থাকে। কিন্তু নিজেদের মাঠে তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। গতপরশু দুই দলের ম্যাচটি শেষ হয়েছে ১-১ গোলে ড্র দিয়ে।

অ্যানফিল্ডে বল দখলে লিভারপুল এগিয়ে। আক্রমণও কম করেনি। ৪ মিনিটে হার্ভে ইলিয়টের শট পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়। ১০ মিনিটে জর্দান হেন্ডারসনের ভলি হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট। ২২তম মিনিটে মোক্ষম জবাব দেয় চেলসিও। প্রথম গোল করে এগিয়ে যায় অল বøুজরা। জেমসের ফ্রি-কিকে হার্ভাটজ হেডে গোলকিপার আলিসনকে হারিয়ে দেন। পিছিয়ে থেকে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল সফল হয়েছে বিরতির ঠিক আগ মুহ‚র্তে। যোগ করা সময়ে সাদিও মানের শট প্রতিহত করতে গিয়ে বক্সের ভেতরে রিকে জেমস দেখেন লাল কার্ড। এ সময় চেলসির খেলোয়াড়রা প্রতিবাদ জানিয়েও রেফারির সিদ্ধান্ত পাল্টাতে পারেননি। পেনাল্টি থেকে অধিনায়ক মোহামেদ সালাহ লক্ষ্যভেদ করে ম্যাচে সমতা ফেরান।
১০ জনের চেলসি বিরতির পর মাঠে নেমে রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত থেকেছে। অধিকাংশ সময়ে তাদের অর্ধে হয়েছে খেলা। সালাহ-মানেরা একাধিক চেষ্টা করেও এদুয়ার্ড মেন্দিকে দ্বিতীয়বার পরাস্ত করতে পারেনি। সেনেগালিজ এই গোলকিপারই বলতে গেলে দলকে হারতে দেননি। অন্তত ৬টি সুযোগ ঠেকিয়ে দিয়েছেন তিনি। দু’দলই তিন ম্যাচে সাত পয়েন্ট করে পেয়েছে।

একই রাতে লা লিগায় নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদকে ভালোই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল রিয়াল বেতিস। ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দল করেছে সাধ্যমতো লড়াই। কিন্তু পাল্টা-পাল্টি আক্রমণের ম্যাচে নিজেদের মাঠে হার এড়ানো যায়নি। দানি কার্ভাহালের একমাত্র গোলে রিয়াল মাদ্রিদ হারিয়েছে রিয়াল বেতিসকে। এর আগের ম্যাচে লেভান্তের সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করেছিল রিয়াল। তিন ম্যাচে দুই জয় ও একটিতে ড্র নিয়ে সাত পয়েন্ট পেয়ে শীর্ষে আনচেলত্তির দল। বিপরীতে তিন ম্যাচে দুই ড্র ও একটিতে হার বেতিসের।

বল দখলে দুই দল প্রায় সমানে সমান। তবে প্রথম আক্রমণটা রিয়াল মাদ্রিদের। ম্যাচ ঘড়ির ৬ মিনিটে বেনজেমার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। বেতিসও আক্রমণে উঠেছে। গোলের সুযোগও এই অর্ধে কম পায়নি। তবে গোলকিপার কোর্তোয়া ছিলেন দুর্বার। একাই রুখে দিয়েছেন একের পর এক আক্রমণ। রিয়াল ফাঁকে ফাঁকে আক্রমণে উঠলেও লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি। ৬১ মিনিটে কার্ভাহালের সøাইডিং ভলিতে জাল কাঁপায় রিয়াল। গোলকিপার রুই সিলভা বলের লাইনে ঝাঁপালেও শেষ রক্ষা করতে পারেননি। শেষের দিকে বেতিস চেষ্টা করেও সমতায় ফিরতে পারেনি। নিজেদের মাঠে হার নিয়েই মাঠ ছাড়ছে হয়েছে তাদের।

অন্যদিকে জার্মান বুন্দেসলিগা মনেই যেন রবের্ত লেভান্দোভস্কি ‘শো’। ম্যাচের পর ম্যাচ অসাধারণ ছন্দে এগিয়ে চলেছেন এই পোলিশ ফরোয়ার্ড। তার হ্যাটট্রিকে এবার হের্টা বার্লিনকে গুঁড়িয়ে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। গতপরশু মিউনিখের আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ম্যাচটি ৫-০ গোলে জিতেছে ইউলিয়ান নাগেলসমানের দল। অন্য দুই গোলদাতা টমাস মুলার ও জামাল মুসিয়ালা।

শুরু থেকেই মাঠের নিয়ন্ত্রণ নেয়া বায়ার্ন ম্যাচে ৬৪ শতাংশ বলের দখল রেখে ১৫টি শট নেয় তারা, যার ছয়টি ছিল লক্ষ্যে। বিপরীতে আট শটের তিনটি লক্ষ্যে রাখতে পারে হের্টা বার্লিন। নিজের দ্বিতীয় গোলের সময় একটি রেকর্ড গড়েন লেভা। সেটি ছিল ক্লাবের হয়ে ৩৩ বছর বয়সী অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ডের ৩০০তম গোল। গত আসরে রেকর্ড ৪১ গোল করা তারকা এই মৌসুমে এ নিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে চার ম্যাচে ৭ গোল করলেন।
তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বায়ার্ন। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে এগিয়ে বায়ার লেভারকুজেন। তিন ম্যাচেই জয়হীন হার্থা বার্লিন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিভারপুল

১০ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন