Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ছিদ্র খুঁজতে অত্যাধুনিক ‘মোবাইল কার’ প্রযুক্তি এনেছে সিলেট জালালাবাদ গ্যাস কর্তৃপক্ষ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩০ আগস্ট, ২০২১, ৫:০১ পিএম

গ্যাস লাইনের ডানে-বাঁয়ে এক শ মিটার দূরত্বের মধ্যে কোনো ধরনের লিকেজ বা ছিদ্র থাকলে, তা খুঁজে বের করবে একটি অত্যাধুনিক মোবাইল কার। এই কারটি জালালাবাদ গ্যাসের অন্তর্ভুক্ত এলাকায় সঞ্চালন ও বিতরণ লাইনে কাজ করবে গ্যাসের ছিদ্র শনাক্তে।

এমনটাই জানিয়েছেন জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেডের (জেজিটিডিএসএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মো. হারুনুর রশীদ মোল্লাহ। তিনি জানান, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত এই মোবাইল কার গতকাল রোববার থেকে শুরু করেছে কার্যক্রম। হারুনুর রশীদ মোল্লাহ বলেন, ভ্রাম্যমাণ এই লিক শনাক্তকরণ কাজের মাধ্যমে দেশের মূল্যবান প্রাকৃতিক সম্পদ গ্যাসের অপচয় রোধ, গ্যাস লিকজনিত দূর্ঘটনা হ্রাস এবং জানমালের নিরাপত্তায় সহায়ক ভূমিকা করবে পালন।
তিনি বলেন, ‘দেশে চাহিদা অনুযায়ী গ্যাসের মজুত অপ্রতুলভাবে কমে আসছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে গ্যাসের লাইন লিকেজ থাকার কারণে ঘটছে বড় বড় দুর্ঘটনা। এ ধরনের দুর্ঘটনা রোধ করার জন্য এই অত্যাধুনিক মোবাইল কারের মাধ্যমে গ্যাস লিক চিহ্নিতকরণের মাধ্যমে রোধ করা সম্ভব দুর্ঘটনা। জালালাবাদ গ্যাস লাইনের আওতাভুক্ত ডানে-বাঁয়ে এক শ মিটার দূরত্বের মধ্যে যেকোনো ধরনের সমস্যা থাকলে মোবাইল কারটি তা চিহ্নিত করবে। ফলে দেশের এই মূল্যবান সম্পদের অপচয় রোধ করা সম্ভব হবে।’ এর আগে এ ধরনের বিশেষ কার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (টিজিটিডিসিএল)-কে দেখা গেছে ব্যবহার করতে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ প্রযুক্তির ব্যবহার করছে জালালাবাদ কর্তৃপক্ষ। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, কার ব্যবহারের এই পদ্ধতি চালুর ফলে অনুমান নির্ভর ও বিক্ষিপ্তভাবে মাটি খুঁড়ে করতে হবে না ছিদ্র চিহ্নিত। স্বল্প সময়ে অনেক সহজে গুরুত্বপূর্ণ এ কাজটি সমাধান করা হবে, এই কার প্রযুক্তির মাধ্যমে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন