Inqilab Logo

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে কলেজ শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশের সময় : ৬ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা

সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ১৩ বছরের এক শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে কলেজ শিক্ষক অশোক কুমার সরকারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় শিশুর মা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ আসামি অশোককে আদালতে প্রেরণ করেছে। গতকাল বুধবার সকালে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ধর্ষিতা শিশু সীমা আক্তারকে সিভিল সার্জন অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জানা গেছে, উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের দক্ষিণ চন্দ্র গ্রামের মৃত আঃ সামাদের কন্যা সীমা আক্তার (১৩) স্থানীয় করুণাময়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ছাত্রী। গত মঙ্গলবার বিদ্যালয়ে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয় সীমা। পথিমধ্যে ধর্ষক কলেজ শিক্ষক অশোক কুমারের সহযোগী আনু মিয়া সীমাকে কৌশলে অটোরিকশায় তুলে নেয়। এরপর আনু তাকে একটি সিঙ্গারা খেতে দিলে সীমা তা খেলে তার শক্তি কিছুটা লোপ পায়। পরে ধর্ষক অশোক কুমার এবং অপর সহযোগী বাবলু মিয়ার একটি মোটরসাইকেলে করে রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার আনন্দনগর নামক পিকনিক স্পর্টে নিয়ে রুম বুক করার পরিকল্পনা করে। কিন্তু মেয়ের বয়স কম হওয়ায় হোটেল ম্যানেজার রুম দিতে অস্বীকার করেন। ব্যর্থ হয়ে তারা সুন্দরগঞ্জে ফিরতে থাকে। কিন্তু সন্দেহজনক গতিবিধির কারণে পীরগঞ্জ উপজেলাধীন শানেরহাট নামক স্থানে স্থানীয় জনতা কলেজ শিক্ষক অশোক ও সীমাকে আটক করে। এ সময় বাবলু মিয়া কৌশলে পালিয়ে যায়। জনগণের রোষানল থেকে বাঁচতে অশোক স্থানীয় লোকজনদের টাকার বিনিময়ে ম্যানেজ করে সেখান থেকে সুন্দরগঞ্জের উদ্দেশে রওনা দেয়। ইতোমধ্যে সন্ধ্যা হয়ে গেলে ফাঁকা জায়গায় রাস্তার পাশের একটি বাঁশ ঝাড়ে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক সীমাকে ধর্ষণ করে অশোক। এরপর একটি অপরিচিত রিকশায় সীমাকে তুলে দিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায় অশোক। কিন্তু উক্ত রিকশাচালক সীমাকে তার বাড়িতে পৌঁছে না দিয়ে মিঠাপুকুর উপজেলার ইমাদপুর পূর্বপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নামিয়ে দিয়ে কৌশলে কেটে পড়ে। সীমা কান্নাকাটি শুরু করলে স্থানীয় ইউপি সদস্য আঃ সামাদ মিয়া বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দিলে টহলরত পুলিশ সীমাকে উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে বুঝিয়ে দেন। সীমার এ ঘটনায় তার মা ফিরোজা বেগম রাতেই থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ রাতেই ধর্ষক কলেজ শিক্ষক অশোক কুমারকে গ্রেফতার করে। অশোক সুন্দরগঞ্জ ডি ডাব্লিউ কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও পশ্চিম বৈদ্যনাথ গ্রামের মুকুল চন্দ্র সরকারের পুত্র ও সুন্দরগঞ্জ মহিলা ডিগ্রি কলেজের শিক্ষক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে কলেজ শিক্ষক গ্রেফতার
আরও পড়ুন