Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

দেশের বিরুদ্ধে যারা অস্ত্র হাতে নেবে, তারাই দেশের শত্রু : জবিউল্লাহ মুজাতিদ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৩:৩০ পিএম

আফগানিস্তানের সশস্ত্র রাজনৈতিক দল তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, আফগানিস্তানের স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে যেই অস্ত্র হাতে তুলে নেবে, সেই এই দেশ ও দেশের মানুষের শত্রু।

তালেবানের নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকা একমাত্র প্রদেশ পাঞ্জশিরে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার ঘোষণার পর সোমবার কাবুলে এক সংবাদ সম্মেলনে এই মন্তব্য করেন তিনি।
এর আগে সোমবার এক টুইট বার্তায় পাঞ্জশিরের ওপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেন জবিউল্লাহ মুজাহিদ।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আফগানিস্তানের যুদ্ধ শেষ হয়েছে। যুদ্ধ শেষে তিনি আশা করছেন এক স্থিতিশীল আফগানিস্তান প্রতিষ্ঠিত হবে।
মুজাহিদ বলেন, আফগানিস্তানের স্থিতিশীলতার বিরুদ্ধে যারাই অস্ত্র হাতে নেবে, তাদেরকে দেশ ও দেশের জনগণের শত্রু হিসেবে গণ্য করা হবে।
তালেবান মুখপাত্র বলেন, 'জনগণের জানা থাকা প্রয়োজন আগ্রাসনকারীরা আমাদের দেশ গঠন করতে পারবে না। সুতরাং আমাদের জনগণের নিজেদেরই এই দায়িত্ব পালন করতে হবে।'
পাঞ্জশিরের তালেবানবিরোধী আহমদ মাসুদ বাহিনীর সাথে যুদ্ধের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আলেম ও আফগানিস্তানে আগ্রাসন প্রতিরোধ যুদ্ধের সাবেক নেতাদের সহায়তায় তারা শুরুতে আলোচনার মাধ্যমেই বিরোধ মীমাংসার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু সমঝোতা না হওয়ার জেরে তালেবান যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে বাধ্য হয়।
মুজাহিদ বলেন, তবে তারা চাইলে তালেবানের সাথে একত্রে দেশ গঠনের কাজে অংশ নিতে পারেন। তালেবান নেতৃত্ব তাদেরকে ক্ষমা করে দেবে।
জবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, শিগগিরই আফগানিস্তানে ইসলামি ও জবাবদিহিতামূলক সরকার গঠন করা হবে। অন্তর্র্বতীকালীন সময়ের জন্য গঠিত এই সরকারে সকলের অংশগ্রহণ থাকবে।
তালেবান নেতৃত্বের মধ্যে মতবিরোধের কারণে সরকার গঠনে বিলম্ব হচ্ছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে মুজাহিদ বলেন, এটি সম্পূর্ণ গুজব। কোনো প্রকার বিরোধ নয় বরং কৌশলগত কিছু কারণে এই বিলম্ব হচ্ছে। শিগগিরই সরকার গঠিত হবে।
আফগান সামরিক বাহিনীর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত ২০ বছর যারা আফগান বাহিনীতে যুক্ত হয়ে প্রশিক্ষিত হয়েছেন, তালেবান যোদ্ধাদের সাথে তাদেরকে যুক্ত করে আফগানিস্তানে নতুন নিরাপত্তা বাহিনী গঠন করা হবে।
এদিকে বিভিন্ন শহরে আফগান নারীদের বিক্ষোভের বিষয়ে তিনি বলেন, আফগান নারীদের বিক্ষোভের অধিকার রয়েছে। তবে এই মুহূর্তে সরকার গঠিত না হওয়ায় এবং নিরাপত্তা ঝুঁকি থাকায় আমরা তাদের আহ্বান জানাচ্ছি, সরকার গঠন পর্যন্ত অপেক্ষা করার।
কাবুলে রোববার নারীদের এক বিক্ষোভে তালেবান যোদ্ধাদের সহিংস আচরণের বিষয়ে মুজাহিদ জানান, অনেক তালেবান যোদ্ধাই এখনো প্রশিক্ষিত না হওয়ায় এই দুঃখজনক ঘটনা ঘটে। ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টদের তারা গ্রেফতার করেছেন।
পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের প্রধানের সফর সম্পর্কে তিনি বলেন, পাকিস্তান এর আগে এমন একটি সফরের জন্য বার্তা পাঠালেও তালেবান সম্প্রতি এতে সম্মতি জানায়। আফগানিস্তান ও পাকিস্তান উভয় দেশের সীমান্ত, অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে তারা আলোচনা করেন। সূত্র : তোলো নিউজ, আলজাজিরা



 

Show all comments
  • মোহাম্মদ দলিলুর রহমান ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৩:৪৪ পিএম says : 0
    সুন্দর সিদ্ধান্ত উনি বলেছেন সবাইকে নিয়ে সরকার গঠন করবে,এর থেকে আর কিছু বলার নেই।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ