Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বিদেশ থেকে ফেরত আসা পণ্য পুনঃরফতানিতে ১০ নির্দেশনা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৯ এএম

রফতানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন দেশে থেকে ফেরত আসা পণ্যের চালান খালাস ও পুনঃরফতানি সহজ করার জন্য ১০টি বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

এনবিআরের কাস্টমস ও বন্ড বিভাগের দ্বিতীয় সচিব মশিউর রহমান মন্ডল সই করা আদেশ সূত্রে বিষয়টি জানা গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এনবিআরের জনসংযোগ দফতর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, রফতানি বাণিজ্যের প্রসার, উদারীকরণ ও সহজীকরণের লক্ষ্যে কাস্টমস আইনে দেওয়া ক্ষমতাবলে এনবিআর রফতানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন দেশে থেকে ফেরত আসা পণ্য চালান খালাস ও পুনঃরপ্তানির স্বার্থে এমন নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে- ফেরত আসা পণ্য চালানের আমদানি ও রফতানি সংক্রান্ত সব দলিল যথাযথভাবে যাচাই করে নিশ্চিত হতে হবে। ন্যূনতম একজন সহকারী কমিশনারের প্রত্যক্ষ তত্ত¡াবধানে পণ্য চালানগুলো শতভাগ কায়িক পরীক্ষা করে পণ্যের বর্ণনা, ওজন, সংখ্যা বা পরিমাণ প্রভৃতি নিশ্চিত হয়ে খালাস ও পুনঃরফতানি কার্যক্রম শেষ করতে হবে। খালাসকালে আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরের অনাপত্তিপত্র দাখিল করতে হবে। পুনঃরফতানির আগে সংশ্লিষ্ট লিয়েন ব্যাংক এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনাপত্তিপত্র দাখিল করতে হবে। খালাসকালে হালনাগাদ অথবা বর্ধিত জাহাজীকরণের মেয়াদ সম্পন্ন রফতানি আদেশের কপি দাখিল করতে হবে। পণ্য খালাসের এক বছরের মধ্যে ফেরত আসা পণ্য চালান পুনঃরপ্তানি করতে হবে।

বন্ড লাইসেন্সবিহীন প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য শুল্ক-করের সমপরিমাণ নিঃশর্ত ও অব্যাহত ব্যাংক গ্যারান্টি গ্রহণ সাপেক্ষে পণ্য চালান খালাস দিতে হবে। রফতানিমুখী বন্ডেড শিল্প প্রতিষ্ঠান ফেরত আসা পণ্য চালানের বিপরীতে এ মর্মে অঙ্গীকারনামা দাখিল করবে যে, পণ্য চালান খালাসের এক বছরের মধ্যে রপ্তানি করতে ব্যর্থতায় ছাড়কৃত চালানের বিপরীতে প্রযোজ্য শুল্ক - করাদি পরিশোধ করতে বাধ্য থাকবে। ব্যাংক গ্যারান্টি অথবা অঙ্গীকারনামার শর্তাদি পরিপালনে ব্যর্থ হলে শুল্ক কর আদায়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে রফতানিকারক এনবিআরে আবেদন করতে পারবে। এর মাধ্যমে পণ্য খালাস ও পুনঃরফতানি সংক্রান্ত ২০০৭ ও ২০১৭ সালের এ সংক্রান্ত বিশেষ আদেশ বাতিল বলে গণ্য হবে বলেও নির্দেশনায় বলা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পণ্য পুনঃরফতানিতে ১০ নির্দেশনা
আরও পড়ুন