Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

মাদরাসা শিক্ষায় কোনো জঙ্গিবাদের স্থান নেই

যশোরে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সংবর্ধনায় শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ৭ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা, যশোর : যশোরে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপিকে সংবর্ধনা দিয়েছে জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীন। মন্ত্রী ঢাকা থেকে বিমানে গতকাল সকালে যশোর বিমানবন্দরে এসে পৌঁছলে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের জেলা সভাপতি মাওলানা নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। তিনি বিমানবন্দরে বিপুলসংখ্যক মাদরাসা শিক্ষকদের উপস্থিতিতে সংবর্ধনায় অভিভূত হন।  সংবর্ধনার জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জমিয়াতুল মোদার্রেছীন সারাদেশে জঙ্গিবাদবিরোধী বিরাট ভূমিকা পালন করেছে। এতে আমি খুবই খুশি। জাতির কাছে আজ স্পষ্ট মাদরাসা শিক্ষায় জঙ্গি সন্ত্রাসীর কোনো স্থান নেই। তিনি নেতৃবৃন্দকে আরো সোচ্চার হয়ে মাদরাসার শিক্ষার্থীসহ যার যার এলাকার পাড়া-মহল্লায় গণসচেতনতা সৃষ্টি করে জঙ্গি সন্ত্রাসীদের রুখে দেয়ার ব্যাপারে ভূমিকা রাখতে অনুরোধ জানান।
পরে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ যশোর শিক্ষা বোর্ড আয়োজিত “শিক্ষার উন্নত পরিবেশ, জঙ্গিবাদমুক্ত শিক্ষাঙ্গন” শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ এখন শুধু বাংলাদেশের নয়, সারাবিশ্বের প্রধান সমস্যায় পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশের সাম্প্রতিক হামলাগুলো একটি গোষ্ঠীর গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। তারা বিশ্বের কাছে এ দেশকে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ রাষ্ট্র বানাতে চায়। এর কারণ হচ্ছে দেশের অর্থনীতি উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নস্যাৎ করা। তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বে আমাদের মানবসভ্যতা অনেক উঁচু স্তরে পৌঁছে গেছে, সে কারণে খুন-খারাবির মাধ্যমে জাতিকে বিশ্বদরবারে সন্ত্রাসী-জঙ্গি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে।’
সিলেটে কলেজ ছাত্রী নার্গিসকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে আহত করার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘আমরা আমাদের মেয়েদের নিরাপত্তা দিতে চাই।  ছেলেদেরও ভালো করতে চাই। এজন্যে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। মানুষের নৈতিক মূল্যবোধ, দেশপ্রেম সর্বোপরি প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘দ্রুত মেয়েদের নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্যে, বখাটে, খারাপ আর সমাজবিরোধীদের জন্যে আইনি ব্যবস্থা কঠোর করার জন্যে সামাজিক চেতনা, সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই সমাজ থেকে এসব খারাপ কাজ রুখে  দেয়া সম্ভব বলে তিনি মনে করেন। জঙ্গিবাদের বিষয়ে গুরুত্বারোপ করে মন্ত্রী বলেন, শান্তির ধর্ম ইসলামের নামে কতিপয় জঙ্গি-সন্ত্রাসী বিশ্বের বিভিন্ন   দেশকে বাড়তি একটা সঙ্কটের মধ্যে ফেলে দিয়েছে। তিনি বলেন, কেবল মুসলিমপ্রধান দেশগুলো নয়; জঙ্গি হামলার শিকার আজ ফ্রান্স, জার্মানি, আমেরিকাও। আমরা ভেবেছিলাম আমাদের দেশে এই ধরনের ঘটনা ঘটবে না। কেননা আমাদের দেশে সেই রকম কোনো পরিস্থিতিও তৈরি হয়নি। কিন্তু গুলশানে হোটেল আর শোলাকিয়ায় ঈদের জামাতের ঘটনা আমাদের বিস্মিত করেছে। তাদের টার্গেট মূলত আমাদের দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন যেন বাধাগ্রস্ত হয়।
মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন যশোর শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল মজিদ। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা সচিব এএস মাহমুদ, অতিরিক্ত শিক্ষা সচিব অশোক বিশ্বাস, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. ওহিদুজ্জামান, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আবদুস সামাদ, মাদরাসা শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক বিল্লাল হোসেন, যশোরের জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানসহ শিক্ষা বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।