Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সীমান্তে হত্যাকাণ্ড আন্তর্জাতিক আইনবিরোধী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের গুলিতে বাংলাদেশী নাগরিক হত্যার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে বিএনপি। দলটি মনে করে সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারনেই এই সকল হত্যাকাণ্ড বিষয়ে কখনও কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করা সম্ভব হয় নি। সভ্য পৃথিবীর কোনও দেশে সীমান্তে এই ভাবে মানুষকে গুলি করে হত্যা করা হয় না। এটা আন্তর্জাতিক আইন বিরোধী। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভায়, এই ধরনের ন্যক্কার জনক হত্যাকাণ্ড থেকে বিরত থাকার জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে বাধ্য করতে সরকারকে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়। গত ৪ সেপ্টেম্বর কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার দাঁতভাঙ্গা সীমানে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী নাগরিক শাহিবর রহমান হত্যার নিন্দা জানিয়ে গত শনিবার স্থায়ী কমিটির এক ভার্চুয়াল সভায় এই আহ্বান জানানো হয়।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভা মনে করে, উপহারের ঘর যারা ভেঙ্গেছে তাদের তালিকা হাতে রয়েছে’ প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্য আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের অধীনে ঘর নির্মানে দূর্নীতিবাজ আওয়ামী লীগ দলীয় ঠিকাদার ও দলবাজ আমলাদের দূর্নীতির পক্ষে সাফাই গাওয়ার শামিল। সভা বলে, প্রকৃত পক্ষে দূর্নীতিকে এখন রাষ্ট্রীয়ভাবে সমর্থন করা হচ্ছে। রাষ্ট্রের সর্বক্ষেত্রে আওয়ামী সরকার দূর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিচ্ছে। সভায় প্রধানমন্ত্রীর এ মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করা হয়।

সভায়, চট্টগ্রাম পুরাতন সার্কিট হাউজে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের নামে থাকা যাদুঘর সরিয়ে ফেলা হবে বলে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী যে উক্তি করেছেন তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।
সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে নির্মমভাবে হত্যার পর তৎকালীন সরকার সার্কিট হাউজটিকে যাদুঘরে রূপান্তরের সিদ্ধান্ত নেন। এটা ছিল জনগণের দাবীর ভিত্তিতে স্বাধীনতা যুদ্ধের ঘোষকের প্রতি জাতির সম্মান প্রদর্শনের নিদর্শন। যাদুঘর সরানোর হীন সিদ্ধান্ত কোন দিনই জনগণ মেনে নেবে না।
এছাড়া সম্প্রতি ছাত্রদলের সাবেক সভাপতিসহ দলের বহুসংখ্যক নেতা-কর্মী এবং অন্যান্য বিরোধী দলের নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা জানানো হয়। গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে মুক্তি এবং সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়।

বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যরিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বেগম সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ