Inqilab Logo

সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সঙ্কট সৃষ্টির জন্যই বন্ধ আফগান অ্যাকাউন্ট

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

বিশ্বের পক্ষে এটা আশা করা অন্যায় হবে যে, আফগানিস্তান আট দিনের মধ্যে কিছু স্ক্যান্ডিনেভিয়ার দেশের মতো সমৃদ্ধশালী হয়ে উঠবে। রোববার এই মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন যে, আফগান অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া একটি মানবিক সঙ্কট তৈরি করতে পারে।

আফগানিস্তানের জব্দ করা ব্যাংক একাউন্টগুলো খুলে দেয়ার জন্য বিশ্বের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে রশিদ আহমেদ বলেন, আমরা আশা করবো, তালেবানরা বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলবে। তারা সন্ত্রাসী সংগঠন টিটিপি অথবা দায়েশ বা আইএস’কে তাদের মাটি ব্যবহার করতে দেবে না। তিনি আরো বলেন, শনিবার দুটি সুপারপাওয়ার সহ আটটি দেশের গোয়েন্দা প্রধানরা পাকিস্তান সফর করেছেন। স্থানীয় একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে ভারতের কোনো আকাঙ্খাই পূরণ হবে না। আর কোনো রক্তপাত ঘটবে না। তিনি আরো বলেন, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দেয়ার জন্য ভারতীয় মিডিয়া যেন চিৎকার করছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মিডিয়া আফগানিস্তানের পাঞ্জশিরে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন বানোয়াট রিপোর্ট প্রকাশ করছে। একই সঙ্গে ভিত্তিহীন সব খবর টেলিভিশনে প্রচার করছে। মনে রাখা উচিত, আফগানিস্তানে পাকিস্তানের স্বার্থ হলো শুধু শান্তি, স্থিতিশীলতা এবং উন্নতি সাধন।

রশিদ আহমেদ বলেন, ভারতের মিডিয়া যেসব খবর প্রচার করছে তার মধ্যে শতকরা ৮০ থেকে ৮৫ ভাগই মিথ্যা। আঞ্চলিক ও ভৌগলিক দিক দিয়ে পাকিস্তানের অবস্থান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শান্তির বিষয়ে বিশ্বের সঙ্গে পাকিস্তান আলোচনা চালিয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন, শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা মার্কিনিদের সঙ্গে মোল্লা (তালেবানের শীর্ষ নেতারা) ভাইদেরকে আলোচনার টেবিলে বসিয়েছি। পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কোনো চুক্তি ছাড়াই আফগানিস্তান ছেড়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্র। পাকিস্তানও কোনো চুক্তি স্বাক্ষর করেনি। আমরা তাদেরকে (তালেবান) কোনো কিছুতেই নির্দেশনা দিই না। তবে আমরা শুধু শান্তির পক্ষে। মন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে তিক্ততা পাকিস্তানের মতো নিরপেক্ষ দেশগুলোর জন্যও সমস্যা তৈরি করেছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি ইমরান খানের পরামর্শ গ্রহণ করলে তাকে পালাতে হতো না। পাকিস্তান আফগানিস্তান সম্পর্কে সিদ্ধান্ত আফগানদের ওপর ছেড়ে দেয়। পাকিস্তান নিজেও (আফগান বিষয়ে) হস্তক্ষেপ করে না এবং অন্যদের হস্তক্ষেপ করতে দেবে না। আরেকটি প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইমরান খান এই অঞ্চলে শান্তি চান, তিনি আফগান পরিস্থিতি নিয়ে চীন ও রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করছেন এবং ১৭ সেপ্টেম্বর তাদের নেতাদের সঙ্গে দেখা করবেন। ইরানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকও হতে পারে। রশিদ আহমেদ বলেন, বিদেশী উপাদান পাকিস্তানে সাম্প্রদায়িক সমস্যা তৈরির চেষ্টা করছে কিন্তু কাউকে ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না। তিনি বলেন, ইমরান খান এবং তার মন্ত্রিসভা ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন চালু করতে চেয়েছিল এবং বিরোধীদের যদি কোনও আপত্তি থাকে তবে এই সমস্যা সমাধানের জন্য সরকারের সাথে আলোচনা করা উচিত। সূত্র : ডন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ