Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

বানারীপাড়ায় দেড় বছর ধরে সিজারিয়ান অপারেশন বন্ধ

স্বাস্থ্যসেবার বেহাল দশা

প্রকাশের সময় : ৮ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বানারীপাড়া (বরিশাল) উপজেলা সংবাদদাতা

বানারীপাড়ায় সাধারণ মানুষ বর্তমান সরকারের স্বাস্থ্যসেবার সুফল থেকে অনেকটা বঞ্চিত। এ উপজেলার ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত প্রায় দেড় বছর ধরে এনেসথেসিয়ার (অজ্ঞান) চিকিৎসক না থাকায় প্রসূতির সিজারিয়ানসহ সবধরনের অপারেশন বন্ধ রয়েছে। এখানে ডিএসএফ কার্ডধারী দরিদ্র প্রসূতি মায়েদের সিজারিয়ান অপারেশন বন্ধ থাকায় রোগীরা দারণ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। প্রসূতি মা ও তাদের স্বজনরা অভিযোগ করেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পার্শ¦বর্তী সেবা সদন নামের একটি ক্লিনিকে বহুগুণ অর্থ ব্যয় করে তাদেরকে সিজারিয়ান অপারেশন করাতে হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, অবৈধ ক্লিনিক মালিকরা তদবির করে গত বছরের জুলাই মাসে এনেসথেসিয়া চিকিৎসক ডা. লুৎফুর আজিজকে বদলি করানো হয়। পাশাপাশি নতুন করে যাতে ওইপদে কেউ আসতে না পারে সে চেষ্টায় তৎপর রয়েছেন। এদিকে চাখার ১০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল, ৮ ইউনিয়নের ইউনয়ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে নামকাওয়াস্তে চিকিৎসাসেবা দেয়া হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। এ প্রসঙ্গে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নবকুমার সমদ্দার জানান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিজি অফিস থেকে ৭ দিন পূর্বে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে একজন এনেসথেসিয়া চিকিৎসক দেয়া হচ্ছে বলে ফোনে জানানো হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এনেসথেসিয়ার কোনো চিকিৎসক বানারীপাড়ায় যোগদান করেননি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন