Inqilab Logo

সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

হালাল সার্টিফিকেট দেবে বিএসটিআই

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৪৮ এএম

খাদ্যপণ্য এবং কসমেটিকসের হালাল সার্টিফিকেট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)। কোনো পণ্য মান বজায় রেখে বাজারজাত করা হচ্ছে কিনা সেটা দেখে বিএসটিআই।

বিএসটিআই জানায়, দেশের পণ্যের মান উন্নত করতে হবে, একই সঙ্গে বিদেশে পণ্য রপ্তানি করতে হবে।

প্রতিষ্ঠানটির সার্টিফিকেশন মার্কস উইং এর উপপরিচালক রিয়াজুল হক বিবিসি বাংলাকে জানান, দেশের বাজার এবং রপ্তানির কথা চিন্তা করে হালাল পণ্যের সার্টিফিকেটের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, খাদ্য-পণ্য এখন বিভিন্ন ইসলামী দেশে রপ্তানি হচ্ছে এবং ঐ সকল দেশে হালাল পণ্যের একটা চাহিদা থাকে। এ কথা মাথায় রেখেই তারা বিএসটিআই হালাল সনদ দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

বিএসটিআইয়ের এই কর্মকর্তার ভাষ্য, আমরা যেহেতু পণ্যের মান সনদ দিচ্ছি, পাশাপাশি আমরা যদি হালাল সনদ প্রণয়ন করি তাহলে কোনো প্রতিষ্ঠান একই জায়গা থেকেই দুটি সনদ পেয়ে যাবে, তাদের কাজটা অনেক সহজ হয়ে যাবে। এর ফলে দেশি এবং আন্তর্জাতিক উভয় বাজার সুফল পাবে। একটা পণ্য হালাল কিনা সেটা বিদেশিদের দেখার যেমন অধিকার রয়েছে আমাদেরও তেমন রয়েছে, আমরাও দেখবো‍।

‘প্রাথমিকভাবে খাদ্য পণ্যের হালাল সার্টিফিকেট দেয়ার বিষয়টিকেই অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি কসমেটিকস পণ্যকে হালাল সনদ দেয়া হবে। যিনি আবেদন করবেন তাকেই আমরা দিতে পারবো, তবে আমরা খাদ্য পণ্যকে অগ্রাধিকার দেব।’

যে প্রক্রিয়ায় হালাল সনদ :

রিয়াজুল হক বলেন, ‘আমাদের ল্যাবরেটরিগুলো এক্রিডিটেড, আমরা তাদের পণ্য পরীক্ষা করবো। এখানে যারা কাজ করবেন তারা উচ্চ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। সুতরাং আমাদের যে সনদটা দেয়া হবে সেটা অনেকটাই অথেনটিক হবে।’

‘পণ্যের মানের যেমন স্ট্যার্ন্ডাড রয়েছে সেটা অনুসরণ করেই আমরা তাদের মান সনদ দিয়ে থাকি। একই রকম হালাল পণ্যেরও বাংলাদেশে কিছু মান রয়েছে। কোনো প্রতিষ্ঠান যখন আমাদের কাছে আবেদন করবে তখন আমরা সেই স্ট্যান্ডার্ড অনুসরণ করে পরিদর্শন, পরীক্ষণ এবং আনুষঙ্গিক সকল কার্যক্রম সেই স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী অনুসরণ করবো। সেটা আন্তর্জাতিক স্ট্যার্ন্ডার্ডের হবে।’

যেসব প্রতিষ্ঠান হালাল সার্টিফিকেট নিতে চান তাদেরকে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন বা বিএসটিআই এর ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার থেকে ফরম নিতে হবে। সেখান থেকে আনুষঙ্গিক কাজ সম্পন্ন করতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএসটিআই


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ