Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

উইন্ডিজ পেস অ্যাটাক নির্বিষ করবে বাংলাদেশ

প্রকাশের সময় : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : তিনদিন আগে ফতুল্লায় পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে হারিয়ে সে কি উৎসব। প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে  ২০১২ টি-২০ বিশ্বকাপ ট্রফি জিতে  গেইল,  স্যামুয়েলস, ব্রাভোদের গ্যাংনাম ড্যান্সকেই যেনো ফতুল্লায় মনে করিয়ে দিয়েছে শিমরন হেটমেয়াররা। যে দলটি প্রাক অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কাছে হয়েছে ওয়ানডে সিরিজে ছিন্ন ভিন্নÑ সেই দলটির ওই জয়, স্কোরশিটে ৫৭ উঠতে পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ৫ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দিযে, ১০ ওভার হাতে রেখে ৫ উইকেটে উইন্ডিজের  জয়ে একটু তো ভাবতে হচ্ছে এই দলটিকে নিয়ে।
ম্যাচটিতে আজ লড়াই হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পেস ভার্সেস বাংলাদেশ যুবাদের স্পিনে। উইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ৫ পেসার ভার্সেস বাংলাদেশ অর্ধ্ব-১৯ দলের ৪ স্পিনার। তবে  আলজারি জোসেফ ও হোল্ডার কোয়ার্টার ফাইনালে পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইন কাঁপিয়ে দেয়ার পরও এই বোলিং কম্বিনেশন নিয়ে ভয়ের কিছুই দেখছেন না বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হেড কোচ মিজানুর রহমান বাবুলÑ ‘অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে আমরা তিনটি ওয়ানডে খেলেছি। জোসেফ নামে তাদের একজন পেসার আছে। তাকে আমাদের ছেলেরা ভালো করেই চেনে। তার বোলিং সম্পর্কেও আমাদের ব্যাটসম্যানদের ভালো ধারণা আছে। তার বিপক্ষে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের অন্য বোলারদের বিপক্ষে খেলার জন্য আমাদেও প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। দলটির হার্ডহিটিং ব্যাটসম্যান (গিডরন পপ) আছে। সে বিশ্বকাপের তিন ম্যাচে বেশি রান করতে পারেনি। আশা করি কালও কিছু করতে পারবে না (হাসি...)!’
চেনা প্রতিপক্ষ, চেনা সব বোলার। তার পরও উইন্ডিজ বোলিং অ্যাটাক নিয়ে এ ক’দিন ভালই গবেষনা করেছেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ। সেমি’র হার্ডল পেরিয়ে ইতিহাস রচনায় উইন্ডিজ বোলিং আক্রমন সামাল দেয়ার কৌশলটা বাতলে দিয়েছেন তিনি শিষ্যদেরÑ ‘ওরা আমাদের সঙ্গে আগে খেলেছে। ছেলেরা ওদের দু’জনকে চিনে। আশা করি কালও (আজ) তার বিপক্ষে ছেলেরা ভালো কিছু করবে। শুধু জোসেফকে নিয়ে নয়, অন্যদের নিয়েও কাজ করছি। জোসেফ এই আসরের অন্যতম ভালো বোলারদের একজন। সবাইকে নিয়েই আমাদের প্ল্যান আছে। ভিডিও সেশনও করেছি। আশা করছি তা কাজে লাগবে।’
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের চলমান আসরে বাংলাদেশ টপ অর্ডাররা মেলে ধরতে পারেনি এখনো। সাইফ (৬৮ রান), পিনাক (৭৫ রান), জয়রাজের (১৩১ রান) পারফরমেন্স বলার মতো নয়। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে বাংলাদেশ যুবাদের সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজের অতীতকে টপ অর্ডারদের ফর্মে ফিরতে বড় প্রেরণা হিসেবে কাজ করবে বলে মনে করছেন বাবুলÑ ‘যেহেতু ওদের সেরা শক্তি পেস অ্যাটাক। আমাদের টপ অর্ডার যদি ঠিকঠাক পারফর্ম করে, তবে মিডল অর্ডার ও লোয়ার অর্ডারের কাজটা সহজ হয়ে যায়। প্রথমে ব্যাটিং করে ২৩০ বা ২৫০ যদি করতে পারি, বা এর চেয়ে বেশি যদি হয়, ভালো একটা কিছু আমরা করতে পারবো। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে বিশ্বকাপের আগে আমরা খেলেছি। ওপেনার সাইফ হাসান ওই সিরিজে সেরার পুরস্কার পেয়েছে। একটা সেঞ্চুরিও করেছিলো সে। সাইফ যদি কাল (আজ) দলে থাকে, তবে সে ভালো কিছু করবে বলে আশা করি।’ একাচের মতো উইন্ডিজ পেস অ্যাটাককে নির্বিষ করে টপ অর্ডারদের রানে ফেরার প্রত্যাশা করছেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক মেহেদী হাস্না মিরাজওÑ ‘গতির বল খেলতে বরং আমাদের বেশি ভালো লাগে। কম গতির বল খেললে মিস টাইমিংয়ের সম্ভাবনা বেশি থাকে। বেশি গতির বোলারদের বিপক্ষে খেলতে আমরা সব সময় আত্মবিশ্বাসী থাকি। আমরা দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলে এসেছি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে খেলেছি। এই টুর্নামেন্টে আমরা যে ৪টি ম্যাচ খেলেছি ওইরকম গতির কোন বোলার ছিলো না। এই জন্য আমাদের ওপেনারদের কিছুটা সমস্যা হয়েছে। আশা করি কালকের ( আজ) ম্যাচটা অনেক ভালো খেলবে সবাই।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উইন্ডিজ পেস অ্যাটাক নির্বিষ করবে বাংলাদেশ
আরও পড়ুন