Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০২ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

গোয়ালন্দে পেঁয়াজ বাজারে ধস

প্রকাশের সময় : ৮ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) উপজেলা সংবাদদাতা : রাজবাড়ী জেলায় দেশের মোট চাহিদার প্রায় ৬ ভাগ পেঁয়াজ উৎপাদন হয়ে থাকে। তবে আকস্মিক ভাবে পেঁয়াজের বাজারে ধস নেমেছে। ফলে চাষী ও ব্যবসায়ীরা চরম ভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।
রাজবাড়ী জেলার বৃহৎ পেঁয়াজের বাজার বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুরে গিয়ে দেখা যায়, দাম অর্ধেকে নেমে এসেছে। মৌসুমের শুরুতে এক হাজার থেকে ১ হাজার ৫ শত টাকা মন পেয়াজ বিক্রি হলেও গত বুধবার সেখানে পাঁচ শত থেকে সাত শত টাকা মন দরে পেঁয়াজ বিক্রি হতে দেখা যায়।
ওই বাজারের আসা শরিফুল ইসলাম নামে এক কৃষক জানান, মৌসুমের শুরুতে পেঁয়াজ বিক্রি না করে তিনি ঘরে মজুদ করে রেখে ছিলেন। তার আনা ছিল বছরের এ সময়ে এসে পেঁয়াজের দাম বাড়বে এবং তিনি লাভবান হবেন। অথচ লাভতো দুরের কথা এখন পেঁয়াজ চাষের ব্যয়ই তিনি ঘরে তুলতে পারছেন না। প্রতি মন পেঁয়াজ তিনি এ বাজারে এনে ৫ শত টাকা মন দরে বিক্রি করেছে। অথচ প্রতিমন পেঁয়াজ উৎপাদন করতেই বীজ, সার, কিটনাশক, শ্রমিক মিলিয়ে খরচ হয়েছে এক হাজার থেকে এক হাজার দুই শত টাকা।
ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সালাম সরদার বলেন, তিনি একজন রাখিমাল ব্যবসায়ী। মৌসুমের শুরুতে লাভের আশায় তিনি এক হাজার টাকা মন দরে পেঁয়াজ কিনেছিলেন। তারও ধারণা ছিল বছরের এ সময়ে পেঁয়াজের দাম কিছুটা হলেও বাড়বে এবং তিনি ব্যবসায়ীক ভাবে লাভবান হবেন। তার সে ধারণা হয়েছে ভুল এখন মন প্রতি তার দুই থেকে তিন শত টাকা করে কম মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হচ্ছে। তার মত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সকলেই এবার চরম ভাবে ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গোয়ালন্দে পেঁয়াজ বাজারে ধস
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ