Inqilab Logo

শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮, ০৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সাতক্ষীরায় ইউপি নির্বাচন: বোমা ফাটিয়ে কেন্দ্র দখলের চেষ্টা, র‌্যাবের গুলি বর্ষন

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:৫৯ পিএম | আপডেট : ১:০৯ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১


সাতক্ষীরায় বিচ্ছিন্ন ঘটনা ও টানা বৃষ্টির মধ্যে তালা - কলারোয়া উপজেলার ২১ টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বৃষ্টির কারনে ভোট কেন্দ্র গুলোতে সকালে কিছুটা ফাঁকা দেখা গেলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়ছে।
তালা উপজেলার ১১টি ও কলারোয়া উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে সকাল ৮ টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত। এদিকে, তালার জালালপুর ইউনিয়নের ১ নং মক্তব কেন্দ্রের পাশে বোমা বিস্ফোরণ করে কেন্দ্র
দখলে নেয়ার জন্য আতংক সৃষ্টির চেষ্টা করে নৌকার কর্মী-সমর্থকরা বলে জানিয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মফিদুল হক লিটু। তিনি জানান, সেখানে র‌্যাব সদস্যরা ফাঁকা গুলি বর্ষন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এর আগে সকালে শ্রীমন্তকাটি কেন্দ্রের পাশে নৌকার কর্মী-সমর্থকরা স্বতন্ত্র
প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাঁধা দিচ্ছেন বলে অভিযোগ ওঠে। তারা সেখানে স্বতন্ত্র প্রার্থীর দুই কর্মী সমর্থকের পিটিয়ে আহত করেছেন বলে জানা যায়। রাতে কলারোয়া উপজেলার সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী-
সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে একজন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও একজন ইউপি সদস্য প্রার্থীসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।
জেলা নির্বাচন অফিসার মো: নাজমুল কবির জানান, কলারোয়া ও তালা উপজেলার ২১টি ইউনিয়নের মধ্যে তালায় ৩ টি ও কলারোয়ায় একটিতে ইভিএমে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
তিনি আরো জানান, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুই উপজেলায় ৮১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।
এছাড়া, সংরক্ষিত সদস্য পদে ২৬০ জন নারী ও সাধারণ সদস্য পদে ৮৩৭ জন
প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।
সাতক্ষীরার জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মিজানুর রহমান জানান,
তালা উপজেলার সদর, জালালপুর ও খলিলনগর ইউনিয়ন এবং কলারোয়া উপজেলার
কেড়াগাছি ও হেলাতলা ইউনিয়নকে ঝুকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা
হয়েছে। তবে, ঝুকিপর্ণ কেন্দ্র গুলোতে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখা
হয়েছে।
তিনি আরো জানান, এই দুই উপজেলায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি
নিয়ন্ত্রনে রাখতে ৬ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও ২৩ জন নির্বাহি
মাজিস্ট্রেটসহ ১ হাজার ১০২ জন পুলিশ, ১০০ জন বিজিবি, ৩ হাজার ৩১৫
জন আনসার সদস্য, র‌্যাবের ৬ টি টিম নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত
রয়েছেন।
উল্লেখ্য, এই দুই উপজেলায় মোট ৩ লাখ ৭৫ হাজার ২৯৪ জন ভোটার তাদের
ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৮৮ হাজার ২৪৪
জন ও নারী ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ৮৭ হাজার ৫০ জন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ