Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

অগ্নিগর্ভ কাশ্মীর গুলি করে শিশু হত্যা : জানাযায় মানুষের ওপরও গুলি পুলিশের

প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ভারত সীমান্তে সেনা বাড়াচ্ছে পাকিস্তান
ইনকিলাব ডেস্ক : ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মির আবারো অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে। কাশ্মিরের রাজধানী শ্রীনগরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে পুলিশের ছোড়া পেলেট গানের (ছররা গুলি) গুলিতে ১২ বছরের এক শিশুর প্রাণহানি ঘটেছে। এ ঘটনায় নতুন করে বিক্ষোভ দেখা দেয়ায় শ্রীনগরের বেশ কয়েকটি শহরে আবারো কারফিউ জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। আনাদলু এজেন্সি জানিয়েছে, পুলিশের গুলিতে নিহত শিশু জুনাইদ আখুনের জানাযায় জড়ো হওয়া জনসমুদ্রেও গুলি চালিয়েছে পুলিশ।
গতকাল শনিবার এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় শ্রীনগরের সাইদপোরায় বাড়িতে অবস্থানরত জুনাইদ আখুন পেলেট গানের গুলিতে মারাত্মক আহত হয়। পুলিশ বলছে, ওই এলাকায় সংঘর্ষের পর পেলেট গান থেকে গুলি নিক্ষেপ করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। তবে বিক্ষোভে অংশ নেয়নি গুলিবিদ্ধি জুনাইদ। সংঘর্ষের সময় বাড়িতে অবস্থান করছিল সে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় এক কর্মকর্তা বলেন, শ্রীনগরের সাইপোরার বাড়ির প্রধান ফটকের সামনে ছিল ওই শিশু। এ সময় পুলিশের ছোড়া গুলিতে আহত হয় সে। কয়েক ডজন বুলেট তার মাথা ও বুকে আঘাত হানলে সে গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে শের-ই-কাশ্মির ইনস্টিটিউট হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে।
পরে শত শত মানুষ জুনাইদের লাশ নিয়ে রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় সরকারবিরোধী শ্লোগান দিতেও দেখা যায় অনেককে। শ্রীনগরের একটি ঈদগাহ মাঠে তার লাশ নিয়ে যাওয়ার সময় বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে গুলি করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, জুনাইদের জানাযা শুরু হওয়ার পর নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা তা বন্ধের চেষ্টা করেছে। এ ঘটনায় আবারো নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশের ছোড়া পেলেট গানের গুলিতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।
গত জুলাইয়ে পুলিশের এনকাউন্টারে হিজবুল মুজাহিদিন কমান্ডার বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পর থেকে শ্রীনগরে ব্যাপক সহিংসতা দেখা যায়। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত অন্তত ৯০ জনের প্রাণহানি ও ১০ হাজার মানুষ আহত হয়েছেন। ৯২ দিনের মতো আজও বন্ধ রয়েছে কাশ্মিরের স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান।
ভারত সীমান্তে সেনা বাড়াচ্ছে পাকিস্তান
পাক অধিকৃত কাশ্মিরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কথিত সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর জম্মুর সীমান্ত এলাকায় সেনাবাহিনীর উপস্থিতি বাড়াচ্ছে পাকিস্তান। ভারতীয় গোয়েন্দাদের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। গতকাল শনিবার টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।
সরকারি এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেছেন, নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাকিস্তানের এ পদক্ষেপের কারণে জম্মু ও পাঞ্জাবের আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাছে বসবাসকারী বেসামরিক নাগরিকদের ভারতের ভেতরে স্থানান্তরের পাশাপাশি ভারতীয় সেনার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে।
জ্যেষ্ঠ এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন, এই মুহূর্তে সীমান্তে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর জমায়েত বেড়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। তবে, গত ২৯ সেপ্টেম্বর পাক অধিকৃত কাশ্মিরে সন্ত্রাসী আস্তানায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর অভিযানের ন্যায় আবারো অভিযানের আশঙ্কায় পাকিস্তান এটি করতে পারে। ভারতীয় গোয়েন্দারা বলছেন, সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর পাকিস্তানের ভেতরে কাশ্মিরে শতাধিক সন্ত্রাসী জড়ো হয়েছে। ভারতে প্রবেশ করে ওই সন্ত্রাসীরা হামলা চালাতে পারে। সূত্র : আনাদলু এজেন্সি, এনডিটিভি, হিন্দুস্তান টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অগ্নিগর্ভ কাশ্মীর গুলি করে শিশু হত্যা : জানাযায় মানুষের ওপরও গুলি পুলিশের
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ