Inqilab Logo

সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফর বাতিল

নিজেকে দূরে রাখছে ব্রিটিশ সরকার

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

ব্রিটিশ সরকার মঙ্গলবার ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) পাকিস্তানে তার পুরুষ ও মহিলা ক্রিকেট দলের সফর বাতিল করার সিদ্ধান্ত থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে নিয়েছে, কারণ তার দূত বলেছে, ব্রিটিশ হাইকমিশন নিরাপত্তার কারণে সফরের বিরুদ্ধে পরামর্শ দেয়নি। ‘নিরাপত্তার আশঙ্কায়’ নিউজিল্যান্ডের দেশ সফর পরিত্যাগ করার তিন দিন পর, ইংল্যান্ড আগামী মাসের পাকিস্তান সফর থেকে সোমবার পুরুষ ও মহিলা উভয় দলই প্রত্যাহার করে নেয়।
, ব্রিটিশ হাই কমিশনার ক্রিশ্চিয়ান টার্নার তার অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করা একটি ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘আমি ক্রিকেট ভক্তদের গভীর দুঃখ ভাগ করে নিচ্ছি যে, অক্টোবরে ইংল্যান্ড পাকিস্তান সফরে যাবে না। আমি দুঃখিত’।
ব্রিটিশ দূত বিভিন্ন পাকিস্তানি সংবাদ চ্যানেলে হাজির হয়েছিলেন এ সিদ্ধান্তকে যে, ব্রিটিশ সরকারের সাথে কোন সম্পর্ক আছে বা এর পেছনে কোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য আছে তা ছাপিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।
টার্নার জোর দিয়ে বলেন, ‘এটা ছিল ইসিবি-র সিদ্ধান্ত, যা ব্রিটিশ সরকার থেকে স্বাধীন, খেলোয়াড়দের কল্যাণের জন্য উদ্বেগের ভিত্তিতে। ব্রিটিশ হাইকমিশন সফরকে সমর্থন করেছিল, নিরাপত্তার কারণে এর বিরুদ্ধে পরামর্শ দেয়নি এবং পাকিস্তানের জন্য আমাদের ভ্রমণ পরামর্শ পরিবর্তন হয়নি’ তিনি আরো যোগ করেন যে, পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আনার ক্ষেত্রে তিনি অগ্রভাগে ছিলেন।
তিনি বলেন, ‘আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানে ফিরে আসার একজন চ্যাম্পিয়ন ছিলাম এবং ইংল্যান্ডের ২০২২ সালের শরৎ সফরের আগে আমার প্রচেষ্টা দ্বিগুণ করে তুলব’। ইংল্যান্ড ক্রিকেট সফর বাতিল হওয়া সত্তে¡ও ব্রিটিশ হাইকমিশনার আশা করেছিলেন যে, ২০০৫ সালের পর প্রথম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শিগগিরই পাকিস্তানে ফিরে আসবে। তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি আমরা শিগগিরই আবার পূর্ণ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গর্জন শুনব। শেষ পর্যন্ত ক্রিকেটই বিজয়ী হবে’। রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার কয়েক ঘণ্টা আগে এই সফর বাতিল করা হয়।
উন্নয়নের পরপরই, ইসিবি বলেছিল যে, এটি আসন্ন পাকিস্তান সফরও পর্যালোচনা করবে এবং সোমবার, ইসিবি বলেছে যে, তারা নিরাপত্তার কারণের পরিবর্তে খেলোয়াড়দের মানসিক চাপের কারণ দেখিয়ে পাকিস্তান সফরে যাবে না। এতে পিসিবির নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান রমিজ রাজার মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে, যিনি বলেছিলেন যে, পাকিস্তানকে ‘ব্যবহার করা হয়েছে এবং বিন্দু করা হয়েছে’।
সরকারের মন্ত্রীরাও এ সিদ্ধান্তকে আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতির সঙ্গে যুক্ত করে প্রশ্ন তুলেছেন। মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকের পর তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে ক্রিকেট সিরিজ থেকে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের দল প্রত্যাহার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ‘একেবারে না’ বলার ফল। সন্ত্রাস দমনের উদ্দেশ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাকিস্তানে বিমানঘাঁটি স্থাপনের অনুমতি দেওয়ার সম্ভাবনার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী যে বিবৃতি দিয়েছিলেন তার উল্লেখ করেছেন। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন