Inqilab Logo

বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

চার মাস পর সর্বনিম্ন মৃত্যু ও শনাক্ত

দেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:৫৩ এএম

দেশে বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্তের হার কমেছে। মে মাসের পর মৃত্যু এবং শনাক্ত দুটোই সর্বনি¤œ অবস্থানে চলে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ও শনাক্তের হার কমেছে। ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৪ জন। এর আগে ২৭ মে একদিনে ২২ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। সেই হিসাবে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু প্রায় চার মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেয়া করোনা বিষয়ক তথ্য বিশ্লেষণ করে এটা জানা যায়।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ১৪৪ জন। এর আগে গত ২২ মে এক হাজার ২৮ জন শনাক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল। সেই হিসাবে করোনায় দৈনিক শনাক্তও গত চার মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। গতকাল তৃতীয় দিনের মতো করোনায় দৈনিক রোগী শনাক্তের হার রয়েছে ৫ এর নিচে। স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্তের হার চার দশমিক ৬১ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাবিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৪ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত মারা গেলেন ২৭ হাজার ৩৩৭ জন। নতুন শনাক্ত এক হাজার ১৪৪ জনকে নিয়ে মোট শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৪৮ হাজার ৩২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬৫৩ জন। তাদের নিয়ে দেশে মোট সুস্থ হলেন ১৫ লাখ ৭ হাজার ৭৮৯ জন।

এতে বলা হয়, দেশে এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ২১ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৩৮ শতাংশ এবং মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।
জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২৪ হাজার ৮৬৮টি আর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৪ হাজার ৮২০টি। দেশে এখন পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৯৫ লাখ ৫১ হাজার ৯৭০টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৭০ লাখ ৪৬ হাজার ৭০৭টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২৫ লাখ পাঁচ হাজার ২৬৩টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৪ জনের মধ্যে পুরুষ ১০ জন আর নারী ১৪ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ৫৬৬ জন এবং নারী ৯ হাজার ৭৭১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৪ জনের মধ্যে বয়স বিবেচনায় ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে রয়েছেন ৪ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২ জন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ২ জন। মারা যাওয়াদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন ১১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৬ জন, খুলনা ও সিলেট বিভাগের ৩ জন করে এবং রংপুর বিভাগের একজন ।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, ২৪ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ১৯ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৫ জন।
এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৩৩৮ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৭৬০ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৮৭০ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ৪৪৬ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৪৩ হাজার ৪২৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে। কারোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট ডেল্টা শনাক্তের পর সারাদেশে করোনা আশঙ্কাজনক ভাবে ছড়িয়ে পড়ে। তবে বর্তমানে করোনা শনাক্ত ও মৃত্যু দুটোই কমে গেছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ