Inqilab Logo

বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

খুলনায় ২০ বছর ধরে পাউবো’র জায়গা বেদখলে, জানে না কর্তৃপক্ষ !

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:৩৯ পিএম

খুলনার জেলখানাঘাট-কোর্ট রোডে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) এর বড় একটি অংশ প্রায় ২০ বছর ধরে বেদখল রয়েছে। পাউবো খুলনার যান্ত্রিক সরঞ্জাম বিভাগ কম্পাউন্ডের ভিতরে অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী মোঃ হাতেম আলী তালুকদার তার পরিবার নিয়ে সরকারী জায়গায় কয়েকটি সেমিপাকা ঘর নির্মাণ করে প্রায় ২০ বছর ধরে বসবাস করছেন। তিনি ওই স্থানে ব্যাটারী চালিত অটো গাড়ীর গ্যারেজও তৈরী করেছেন এবং অফিসের বিদ্যুৎ অবৈধভাবে ব্যবহার করে ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সায় চার্জ দেন। কিভাবে সরকারি চাকুরী থেকে অবসরে যাওয়ার পরও তিনি সরকারি জায়গায় কোন প্রকার বরাদ্দ ছাড়াই বছরের পর বছর রয়েছেন, তা জানা যায়নি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায় জেলখানাঘাট-কোর্ট রোড এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস কম্পাউন্ডটি পাউবো-২ এর অধীন। এ অফিসের কর্মচারীদের থাকার জন্য ওই কম্পাউন্ডে কয়েকটি ঘর রয়েছে। কিন্তু মোঃ হাতেম আলী তালুকদারসহ কয়েকজন অবৈধ দখলদারের কারণে অনেক কর্মচারী শহরে বিভিন্ন স্থানে ভাড়া বাসায় থেকে অফিস করছেন। সরকারী বাসা থাকার পরও সেখানে থাকতে পারছেন না।
এ বিষয়ে হাতেম আলী সরদার বলেন, কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে ঘর তুলেছি। অবৈধ কোনো কিছু আমি করিনি। গ্যারেজ স্থাপনের অভিযোগ সঠিক নয়। অবসরের পর সরকারী বাসায় থাকা যায় কি না তার কোনো সদুত্তর তিনি দিতে পারেননি।
একই এলাকায় বসবাসকারী আইনজীবি আতাউর রহমান জানান, হাতেম আলী তালুকদার নিজেকে সরকারী দলের একজন নেতা বলে পরিচয় দেন। এ কারণে কেউ তার কোনো কাজে প্রতিবাদ করে না।
এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড-২ এর উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী কৃষ্ণ পদ দাস জানান, শহরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোনো জায়গা বেদখলে আছে বলে জানা নেই। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কর্তৃপক্ষ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ