Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮, ২০ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আশুলিয়ায় ঝুট ব্যাবসা দখলে নিতে যুবলীগ নেতার মহড়া

স্টাফ রিপোর্টার, সাভার থেকে : | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

আশুলিয়ায় একটি পোশাক কারখানার ঝুট ব্যবসা দখলের জন্য দেশীয় অস্ত্র নিয়ে কাইয়ুম খান নামের এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মহড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত কয়েকদিন যাবৎ গাজীরচট এলাকার ‘এস এ আর ইন্টারন্যাশনাল ক্লোথিং লিমিটেড’ কারখানার আশেপাশের এলাকায় এই মহড়া দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। এতে আতঙ্কিত হয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে কারখানার শ্রমিকরা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গাজিরচট এলাকার আমিন মাতব্বরের মালিকানাধীন জমি ক্রয় করে গড়ে উঠে পোশাক কারখানাটি। সেই সুবাধে গত দুই বছর যাবৎ ওই কারখানার ঝুট নিয়ে বিক্রি করতেন তিনি । তবে তিনি সরাসরি ঝুট বিক্রি না করে নির্দিষ্ট লভ্যাংশের বিনিময়ে স্থানীয় ধামসোনা ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাইয়ুমকে দায়িত্ব দেন।
এদিকে বেশ কিছু দিন যাবৎ আমিন মাতব্বরকে কোন লভ্যাংশ না দিয়েই যুবলীগ নেতা কারখানা থেকে ঝুট বের করে বিক্রি করে দেয়া শুরু করে। এ কারণে আমিন মাতব্বর যুবলীগ নেতাকে ঝুট বিক্রির দায়িত্ব থেকে সরিয়ে সবুজ নামের এক ব্যবসায়ীকে বুজিয়ে দেয়। সে কারণে যুবলীগ নেতা আমিন মাতব্বরের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে কারখানা ঝুট ব্যবসা দখলের জন্য দেশীয় অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে নিয়ে গত কয়েকদিন যাবৎ দফায় দফায় মহড়া দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে।
কারখানার একাধিক শ্রমিক অভিযোগ করে বলেন, গত কয়েকদিন যাবৎ তাদের কারখানার সামনে ও আশপাশের এলাকায় যুবলীগ নেতার লোকজনকে দেশীয় অস্ত্র নিয় মহড়া দিতে দেখা যাচ্ছে । সকালে কারখানায় যাওয়ার সময় আবার দুপুরের দিকেও তারা এই চিত্র দেখে নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে আতঙ্কিত তারা ।
এস এ আর ইন্টারন্যাশনাল ক্লোথিং লিমিটেডের জিএম জিলানী বলেন, তারা আমিন মাতব্বরের কাছ থেকে জমি ক্রয় করে কারখানাটি গড়ে তুলেছেন। সেই সুবাধে কারখানার ঝুট তাকেই দেয়া হয়। আমিন মাতব্বরের মাধ্যমেই ওই যুবলীগ নেতা মালামাল বের করে নিয়ে যেত। তবে কয়েকদিন যাবৎ তাদের মধ্যে ঝামেলা হওয়ায় আমরা ঝুট দেয়া বন্ধ করে দিয়েছি। তবে
এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী সবুজ বলেন, আমিন মাতব্বর এখন ঝুট নেয়ার দায়িত্ব তাকে বুঝিয়ে দিয়েছে। আর সে কারণেই ওই যুবলীগ নেতা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা চালানোর জন্য মহড়া দিচ্ছে।
এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার এসআই আসওয়াদুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে সেখানে যেন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির কোন অবনতি না হয় যে জন্য তাদেরকে কঠোর হুঁশিয়ার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যুবলীগ নেতা কাইয়ুমের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঝুট ব্যাবসা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ