Inqilab Logo

বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতিসংঘের বিতর্ক থেকে সরে গেলেন আফগানিস্তানের দূত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৩:৪০ পিএম

জাতিসংঘে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত সোমবারের সাধারণ অধিবেশনে বিশ্বনেতাদের ভাষণ দেয়া থেকে সরে আসেন বলে জাতিসংঘের মুখপাত্র জানিয়েছেন। গত মাসে ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির শাসনের প্রতিনিধিত্বকারী গোলাম ইসাকজাইয়ের বক্তব্যের মাধ্যমে তালিবানদের প্রতিহত করার কথা ছিল। কিন্তু সোমবার সকালে তার নাম বক্তাদের তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়।

সাধারণ পরিষদের সভাপতির মুখপাত্র মনিকা গ্রেলে এএফপিকে নিশ্চিত করেছেন ‘দেশ সাধারণ বিতর্কে তার অংশগ্রহণ প্রত্যাহার করে নিয়েছে’। তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘে আফগানিস্তানের মিশন প্রত্যাহারের কারণ উল্লেখ করেনি। তালেবানরা গত সপ্তাহে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসকে একটি চিঠি লিখে তার নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকিকে ‘অংশগ্রহণ’ করার অনুমতি দেয়ার অনুরোধ জানায়। চিঠিতে জোর দিয়ে বলা হয়েছিল যে, ইসাকজাই এখন আর বৈশ্বিক সংস্থায় আফগানিস্তানকে ‘প্রতিনিধিত্ব করে না’।

চিঠিতে বলা হয়েছে, তালেবানরা তাদের দোহাভিত্তিক মুখপাত্র সুহেল শাহীনকে জাতিসংঘে আফগানিস্তানের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে মনোনীত করেছে। গুতেরেস ১৫ সেপ্টেম্বর তারিখের ইসাকজাইয়ের কাছ থেকে একটি পৃথক চিঠি পাওয়ার পরে এ নোটটি এসেছে, যাতে অধিবেশনের জন্য আফগানিস্তানের প্রতিনিধিদলের তালিকা রয়েছে। সেই চিঠিতে ইসাকজাইকে আফগানিস্তানের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। জাতিসংঘ এখনও ইসাকজাইকে আফগানিস্তানের মিশনের প্রধান মনে করে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা এএফপিকে বলেন, ‘কেবল মিশনই প্রত্যাহার করতে পারে’। আফগান মিশনকে তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করার জন্য পাওয়া যায়নি। নয় সদস্যের ক্রেডেনশিয়াল কমিটির অনুমোদন প্রয়োজন প্রতিনিধি পরিবর্তন কার্যকর করার জন্য। এ কমিটির মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া এবং চীন। কিন্তু সময় মতো বৈঠকে বসতে না পারায় তালেবানদের অনুরোধ অনুমোদন সময়মতো হয়নি। সূত্র: ডন অনলাইন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ