Inqilab Logo

রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১ কার্তিক ১৪২৮, ০৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সাফ মিশনে মালদ্বীপে জামাল ভূঁইয়ারা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৩০ পিএম | আপডেট : ১১:৫৫ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১


দক্ষিণ এশিয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ টুর্নামেন্ট সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপায় চোখ রেখে এখন মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে অবস্থান করছেন জামাল ভূঁইয়ারা। মঙ্গলবার বিকাল ৩টা ৫০ মিনিটে ঢাকা থেকে রওয়ানা হয়ে বাংলাদেশ সময় রাত ৭টা ৫০ মিনিটে (মালদ্বীপ সময় সন্ধ্যা ৬টা ৫০ মিনিট) মালে আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে নিরাপদেই পৌঁছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। মালদ্বীপ থেকে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট জানিয়েছে, মালের হোটেল জেনে উঠেছেন জাতীয় দলের সদস্যরা। সেখানে বাংলাদেশ দলের সবাই ভালো আছেন। বুধবার মালেতে অনুশীলনে নামবেন জামাল ভূঁইয়ারা। স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে ৪টায় শুরু হবে অনুশীলন। আগামী ১ থেকে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত মালেস্থ মালদ্বীপ জাতীয় ফুটবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ১৩তম আসরের খেলা।
সাফে এবার ৫টি দেশ অংশ নেয়ায় খেলা হবে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে। সবাই সবার মুখোমুখি হবে। লিগ পর্ব শেষে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনালে। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী দিনই মাঠে নামছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে লাল-সবুজদের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ ৪ অক্টোবর শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে। এরপর ৭ অক্টোবর মালদ্বীপ ও ১৩ অক্টোবর নেপালের মুখোমুখি হবে নতুন স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোনের দল।
মালদ্বীপ এর আগে একবার সাফ আয়োজন করলেও দেশটিতে খেলা হয়নি বাংলাদেশের। ২০০৮ সালে মালদ্বীপের সঙ্গে সাফের যৌথ আয়োজক ছিল শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের গ্রুপের খেলা হয়েছিল শ্রীলঙ্কায়। ওই আসরে গ্রুপ পর্ব টপকাতে না পারায় মালদ্বীপে যাওয়া হয়নি লাল-সবুজদের।
সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে এই প্রথম দ্বীপদেশটিতে গেলেন জামাল ভূঁইয়া-তপু বর্মণরা। দলে অন্তর্বর্তীকালীন নতুন কোচ, ভেন্যুও নতুন। পাশাপাশি বাংলাদেশ দল পুরনো স্বপ্নকে দেখছে নতুন করে। ২০০৩ সালে ঢাকায় প্রথমবার সাফ শিরোপা জেতার পরের আসরে ২০০৫ সালে করাচীতে সর্বশেষ ফাইনাল খেলছিল লাল-সবুজরা। এরপর ব্যর্থতার বেড়াজালেই আটকে আছে তারা। ২০০৯ সালের পর তো সাফের টানা চার আসরে গ্রুপ পর্বই টপকাতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে এবার শিরোপায় চোখ জামাল-অস্কারের। চ্যাম্পিয়ন ট্রফি উদ্ধারের মিশনে লাল-সবুজরা শেষ পর্যন্ত সফল হয় কিনা তা দেখতে ফুটবলামোদীদের চোখও থাকবে দ্বীপদেশটিতে।
সাফের এবারের আসরের ফরমেশনটা নতুন হওয়ায় শিরোপা স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। রাউন্ড রবিন লিগ শেষে শীর্ষ দুই দল লড়বে ফাইনালে। নতুন এই নিয়মের কারণেই লাল-সবুজদের আশাবাদী করে তুলছে। তাই তো মঙ্গলবার ঢাকা ছাড়ার আগে আশার বানী শুনিয়ে গেছে জাতীয় দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজোন। তিনি বলেন,‘আমাদের প্রথম ম্যাচ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ওই ম্যাচে আমরা জিতলে দারুণ এক সূচনা হবে। আমি আশাবাদী ছেলেরা প্রথম ম্যাচে নিরাশ করবে না। এরপর তারা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগিয়ে যাবে। এই দলের উপর ভরসা করছি আমি। প্রতিটা পজিশনে সেরা খেলোয়াড়দেরই নিয়েছি। তাই তাদের কাছ থেকে ভালো ফল আশা করছি।’
অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেন, ‘আমাদের প্রধান লক্ষ্যই হলো সাফ শিরোপা জেতা। লক্ষ্যপূরণে কয়েকটা দিন অনুশীলনে কঠোর পরিশ্রম করেছি আমরা। সবাই নিজেদের সেরাটা দিতে প্রস্তুত আছি। এবার কিছু একটা করে দেখাতে চাইছি সবাই। আমাদের লক্ষ্য থাকবে ম্যাচ বাই ম্যাচ এগিয়ে যাওয়া। চ্যাম্পিয়ন ট্রফি নিয়ে মালে থেকে ঢাকায় ফিরতে চাই। আশা করছি লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবো আমরা।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

১৫ অক্টোবর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ