Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ক্রেডিট কার্ডে ডিজিটাল ডিসপ্লে

প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

জালিয়াতি কার্যক্রম ঠেকানোর জন্য ডিজিটাল ডিসপ্লে সংবলিত ক্রেডিট কার্ড বাজারে চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে অবের্থার টেকনোলজিস। বিশেষ প্রযুক্তিসংবলিত এ কার্ড চালুর জন্য যুক্তরাজ্যের ব্যাংকগুলোর সঙ্গে আলোচনা করছে অবের্থার। চলতি বছরের শেষ নাগাদ কার্ডটি ফ্রান্সের গ্রাহকদের হাতে পৌঁছে দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতির কারণে প্রতি বছর ব্যাংকগুলো বড় অংকের লোকসানের সম্মুখীন হয়। সাররে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক অ্যালান উডওয়ার্ড বলেন, বিশেষ ধরনের এ ক্রেডিট কার্ডটি চালু হতে বেশ দেরি হচ্ছে। ক্রেডিট কার্ডটিও নিরাপত্তার একটি অতিরিক্ত স্তর তৈরি হবে। এটি দেখা যাবে কার্ডের পেছনে থাকা ছোট স্ক্রিনে। এর ডিসপ্লেতে থাকা কোডটি পরিবর্তন হতে থাকবে প্রতি ঘণ্টায় স্বয়ংক্রিয় উপায়ে। এতে থাকা লিথিয়াম ব্যাটারিটি নকশা করতে সময় লেগেছে বছর তিনেক। উডওয়ার্ডের তথ্য অনুযায়ী, এটি কার্ড অপারেটরদের জন্য বেশ ব্যয়বহুল। কিন্তু অনেক ব্যাংকই এ কার্ড ব্যবহারে আগ্রহী হয়েছে। এ ক্রেডিট কার্ডের একটি অসুবিধার দিক হলো গ্রাহক তাদের সিকিউরিটি কোডটি মনে রাখতে পারবেন না। অনলাইনে কেনাকাটার সময় প্রতিবারই কার্ডটি চেক করতে হবে। কার্ডটি গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য প্রস্তুতিস্বরূপ গত বছর থেকে পাইলট স্কিম অনুসরণ করছে ফ্রেঞ্চ ব্যাংক সোসিয়েতে জেনারেলে ও গ্রুপ বিপিসিই। মেক্সিকো ও পোল্যান্ডেও পাইলট স্কিম চালু রয়েছে। যুক্তরাজ্যের ফিন্যান্সিয়াল ফ্রড অ্যাকশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে গত বছর কার্ড জালিয়াতিতে ৭৫ কোটি ৫০ লাখ পাউন্ড লোকসান হয়েছে। এছাড়া জাতীয় পরিসংখ্যান কার্যালয় থেকে বলা হচ্ছে, কার্ড জালিয়াতিতে ক্ষতিগ্রস্থের সংখ্যা ২০ হাজার ২৫৫ জন। জালিয়াতি মোকাবেলায় ব্যাংকগুলো নির্ভরযোগ্য সমাধান উদ্ভাবনে কাজ করছে। নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ক্যাসপারস্কি ল্যাব জানিয়েছে, সাইবার অপরাধীরা এরই মধ্যে নতুন এ প্রযুক্তিকে বানচাল করে দেয়ার পরিকল্পনা শুরু করেছে। ক্যাসপারস্কির প্রধান নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ ডেভিড এমের ভাষ্যে, মোশন কোড চোরদের কার্ডটির তথ্য চুরির সুযোগ কমাবে। এছাড়া নিরাপত্তা কোডটি অন্য ডিভাইস থেকে তৈরি করা হলে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো শক্তিশালী হবে বলে তার ধারণা।

স ইমরান খান



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ