Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

বিশ্বব্যাপী ডিভাইস সরবরাহ কমবে তিন শতাংশ

প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শওকত আলম পলাশ

পার্সোনাল কম্পিউটার, ট্যাবলেট, আল্ট্রামোবাইল ও স্মার্টফোন সবকিছুর বিক্রিই চলতি বছর কমবে বলে জানিয়েছে বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনার। এটি সেলফোন ও পিসি নির্মাতা দুই পক্ষের জন্যই দুঃসংবাদ। চলতি বছর বিশ্বজুড়ে ডিভাইস সরবরাহ গতবারের চেয়ে ৩ শতাংশ কমবে। এর মধ্য দিয়ে টানা দ্বিতীয় বছরের মতো কমছে ডিভাইস সরবরাহ। মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি বলছে, ২০১৫ সালে ডিভাইসের বাজার কমেছে দশমিক ৭৫ শতাংশ। গার্টনারের গবেষণা পরিচালক রঞ্জিত অটওয়াল জানান, ডিভাইসের বৈশ্বিক বাজার আগামী পাঁচ বছর স্থিতিশীল থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি বছর সব প্রযুক্তি পণ্যের সরবরাহ কমলেও বাড়তির দিকে থাকবে প্রিমিয়াম আল্ট্রামোবাইল ও ইউটিলিটি সেলফোনের। ২০১৬ সালে পিসির বাজার কমবে ৮ শতাংশ। অটওয়াল এজন্য দায়ী করছেন মুদ্রার অবমূল্যায়নকে। গত বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) পর প্রথমবারের মতো মুদ্রার অবমূল্যায়ন হয়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। পশ্চিম ইউরোপের মতো অঞ্চলে ইউরোর অবমূল্যায়ন হয় উল্লেখযোগ্য হারে। এ পরিপ্রেক্ষিতে পিসির দাম বেড়ে যায়। ব্রেক্সিট ভোটের পর পশ্চিম ইউরোপে পিসির বাজার কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আগামী বছরও পিসির বৈশ্বিক বাজারের প্রবৃদ্ধি থাকবে মন্থর। এক্ষেত্রে পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে ব্যবসায় ব্যয় বাড়ানো প্রয়োজন। অটওয়ালের তথ্য অনুযায়ী, উইন্ডোজ ৮ অপারেটিং সিস্টেমসংবলিত পিসির মজুদ শেষ হয়ে যাওয়া উচিত। এখন পরিণত বাজার ঝুঁকছে উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমবিশিষ্ট পিসিতে। ২০১৮ সালের মধ্যেই এ অপারেটিং সিস্টেমযুক্ত পিসি বাজারে চলে আসবে। পিসির পাশাপাশি সেলফোন সরবরাহ নিয়েও পূর্বাভাস দিয়েছে গার্টনার। চলতি বছর বিশ্বজুড়ে মোট সেলফোন সরবরাহ ১ দশমিক ৬ শতাংশ কমবে। তবে স্মার্টফোন সরবরাহ বাড়বে। ২০১৬ সালে সরবরাহ হবে মোট ১৫০ কোটি ইউনিট স্মার্টফোন। গার্টনারের গবেষণা পরিচালক রবার্ট কোজার তথ্য অনুযায়ী, স্মার্টফোনের বাজার ক্রমেই পরিণত হচ্ছে।
এতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই। তবে আগামী বছর সেলফোন সরবরাহ ফিরে আসবে ইতিবাচক ধারায়। এ নিয়ে আশাবাদী গার্টনার। ২০১৭ সালে বিশ্বব্যাপী সেলফোন সরবরাহ চলতি বছরের চেয়ে ১ দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে ঠেকবে ১৯০ কোটি ইউনিটে। এবার ১৮৯ কোটি ইউনিট সেলফোন সরবরাহের পূর্বাভাস দিয়েছে প্রতিষ্ঠান। ২০১৮ সালে এ পণ্য সরবরাহ আরো ১ দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে ১৯৩ কোটি ইউনিটে পৌঁছানোর সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি বছর অ্যান্ড্রয়েডের বাজার শক্তিশালী করবে চীনা ভেন্ডরগুলো। চীনা নির্মাতারা বাজারে আনবে সাশ্রয়ীমূল্যের প্রিমিয়াম ডিভাইস। আইফোন ৭-এর সহজলভ্যতা সত্ত্বেও অ্যাপলের বিষয়ে আশাবাদী নয় গার্টনার। চলতি বছরটা মার্কিন আইফোন নির্মাতার দুর্বলতার মধ্য দিয়েই কাটবে। সব দিক বিবেচনা করে গার্টনার স্মার্টফোনের বাজার পরিসর সাড়ে ৪ শতাংশ বাড়বে বলে আশা করছে।
অন্যদিকে প্রিমিয়াম স্মার্টফোনের বাজার কমবে ১ দশমিক ১ শতাংশ। তবে আগামী বছর প্রিমিয়াম মডেলের বাজার বাড়বে। অন্যদিকে ট্যাবলেট সরবরাহ কমবে বলেই পূর্বাভাসে জানাচ্ছে গার্টনার। চলতি বছর বিশ্বজুড়ে সরবরাহ হবে ১৭ কোটি ৭০ লাখ ইউনিট ট্যাবলেট। এ পরিমাণ গত বছরের তুলনায় ৯ দশমিক ৭ শতাংশ কম। ওই সময় সরবরাহ হয়েছিল ১৯ কোটি ৬০ লাখ ইউনিট ট্যাবলেট। আগামী বছর ১৭ কোটি ৩০ লাখ ইউনিট ট্যাবলেট সরবরাহ হবে। এ হার চলতি বছরের চেয়ে ২ দশমিক ৩ শতাংশ কম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।