Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

পড়া না পারায় শিশুকে খুন্তির ছ্যাঁকা, কারাগারে শিক্ষিকা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

প্রথম শ্রেণির এক শিশুকে এক থেকে ১০০ পর্যন্ত লিখতে বলা হয়েছিল। কিন্তু সেই কাজ ঠিকভাবে করতে পারেনি শিশুটি। আর তাতেই কড়া শাস্তি দিলেন গৃহশিক্ষিকা। প্রথমে স্কেল দিয়ে মারধর, এরপর গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দিয়েছেন সাত বছরের ওই শিশুর শরীরে। এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে, পাচ্ছেন সাজাও। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হুগলিতে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, ভুক্তভোগী শিশুটি হুগলির হিন্দমোটরের বাসিন্দা। সে প্রাইভেট টিউশন পড়তে যেতো কোন্নগর রাজীব গান্ধী রোডের বাসিন্দা রুমু ঘোষের কাছে। গত শুক্রবার পড়তে গেলে ছাত্রকে এক থেকে ১০০ পর্যন্ত লিখতে বলেন শিক্ষিকা। তা না পারতেই শুরু হয় কঠিন শাস্তি। অভিযোগ উঠেছে, প্রথমে স্কেল দিয়ে পেটানো হয় শিশুটিকে, এরপর গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দেন রুমু। এরপর ছাত্রের ক্ষতস্থানে মলম লাগিয়ে কাপড় বেঁধে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। পাশাপাশি, তাকে নিষেধ করেন বাড়িতে কাউকে কিছু বলতে। রাতে বাড়ি ফিরে সত্যিই কাউকে কিছু জানায়নি শিশুটি। কিন্তু পরের দিন সকালে কাপড় খুলতেই ছাত্রের মায়ের চোখে পড়ে তার পায়ে ছ্যাঁকা লাগার দাগ। এরপর বিস্তারিত শুনে কোন্নগর পুলিশ ফাঁড়িতে শিক্ষিকার নামে লিখিত অভিযোগ করে ভুক্তভোগীর পরিবার। শনিবার সেই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রোববার শ্রীরামপুর আদালতে তোলা হলে তাকে ১৪ দিনের কারাদন্ড দেন বিচারক। জি নিউজ।



 

Show all comments
  • Azad ৫ অক্টোবর, ২০২১, ১২:৩৬ এএম says : 0
    ঐ মহিলা শিক্ষিকাকে 14 দিন নয় 14 বৎসরের সাজা হওয়া উচিৎ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কারাগারে শিক্ষিকা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ