Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ০২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৮ মুহাররম ১৪৪৪

যুক্তরাজ্যের ছায়া প্রতিমন্ত্রী টিউলিপ

প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : যুক্তরাজ্যের বিরোধী দল লেবার পার্টির ছায়া মন্ত্রিসভার শিক্ষাবিষয়ক ছায়া প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগ্নী টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক। গত রোববার লেবার পার্টির শিক্ষাবিষয়ক ছায়ামন্ত্রী অ্যাঞ্জেলা রেইনার এই নিয়োগের কথা ঘোষণা করেন। টিউলিপ শিক্ষাবিষয়ক ছায়া মন্ত্রণালয়ে প্রাক্-প্রাথমিক শিক্ষা বিষয়ে দায়িত্ব পালন করবেন।
শফিক সিদ্দিক ও শেখ রেহানা দম্পতির বড় মেয়ে টিউলিপ ২০১৫ সালে লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসন থেকে লেবার পার্টির এমপি নির্বাচিত হন। দলীয় এমপিদের বিদ্রোহের কারণে সম্প্রতি নতুন করে নেতৃত্বে টিকে থাকার লড়াইয়ে নামতে হয় লেবার নেতা জেরেমি করবিনকে। তৃণমূলের ব্যাপক সমর্থন নিয়ে পুনরায় নেতৃত্বে ফেরা করবিন গত তিন দিনে তার নতুন ছায়া মন্ত্রিপরিষদ গঠন করেন। যেখানে প্রথমবারের মতো কোনো গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পেলেন টিউলিপ।
ছায়া প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার বিষয়টি নিজের টুইটারে জানিয়ে টিউলিপ বলেন, ‘ছায়া মন্ত্রিপরিষদে অ্যাঞ্জেলা রেইনার নেতৃত্বে শিক্ষাবিষয়ক টিমে যোগদান করতে পেরে আনন্দিত। আমরা সরকারকে শিক্ষাবিষয়ক কার্যক্রমের বিষয়ে জবাবদিহি করতে লড়াই করে যাবো’।
যুক্তরাজ্যে সংসদীয় গণতন্ত্রের রীতি অনুযায়ী সরকারকে জবাবদিহি করার জন্য সরকারের বিপরীতে বিরোধী দলও একটি মন্ত্রিসভা গঠন করে। এটিকে বলা হয় ছায়া মন্ত্রিসভা (শ্যাডো কেবিনেট)। ছায়া মন্ত্রিসভায় দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের কাজ হলো সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের সিদ্ধান্ত ও কার্যক্রমের পর্যবেক্ষণ, বিশ্লেষণ ও ভুলত্রুটি তুলে ধরে চ্যালেঞ্জ করা। সেই সঙ্গে নিজ দলের পক্ষে বিকল্প প্রস্তাব উপস্থাপন করা। এই ছায়া মন্ত্রিসভাকে বলা যেতে পারে বিরোধী দলের ক্ষমতায় যাওয়ার প্রাক-প্রস্তুতি। দল ক্ষমতায় গেলে ছায়ামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনকারীরাই মন্ত্রিত্বের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচিত হন। যে কারণে ছায়া প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনী টিউলিপ ব্রিটিশ রাজনীতিতে আরো একধাপ এগিয়ে গেলেন।
যুক্তরাজ্য সরকারের দপ্তরগুলোতে একজন মন্ত্রীর অধীনে সাধারণ চারজন করে প্রতিমন্ত্রী দায়িত্ব পালন করেন। একইভাবে ছায়ামন্ত্রী সভায় একজন ছায়ামন্ত্রীর অধীনে চারজন করে ছায়া প্রতিমন্ত্রী রাখা হয়। ছায়া মন্ত্রিসভার শিক্ষাবিষয়ক দপ্তরে অ্যাঞ্জেলা রেইনার অধীনে টিউলিপ ছাড়া বাকি তিন ছায়া প্রতিমন্ত্রী হলেনÑ এমপি গর্ডন মার্সডেন, মাইক কেইন ও এমা লিউয়েল বাক।
ব্রিটিশ রাজনীতিতে উদীয়মান তারকা হয়ে ওঠা টিউলিপ সিদ্দিকের নামটি লেবার নেতা জেরেমি করবিনের জন্য আজীবন স্মরণীয় হয়ে থাকবে। কেননা ২০১৫ সালে করবিন যখন দলের নেতা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার জন্য কোনোভাবেই প্রয়োজনীয় ৩৫ জন এমপির সমর্থন জোগাড় করতে পারছিলেন না, তখন সদ্যনির্বাচিত টিউলিপ ৩৫তম এমপি হিসেবে সমর্থন দিয়ে করবিনের প্রার্থিতা টিকিয়ে দেন।
আজীবন পেছন সারির এমপি হিসেবে দায়িত্ব পালন করা করবিন একজন খাঁটি বামপন্থী লোক, তাই দলের সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপি করবিনবিরোধী। টিউলিপ তখন বলেছিলেন, নেতা হিসেবে করবিনকে ভোট দেবেন না; কিন্তু নেতৃত্ব নির্বাচনে বহুমতের বিতর্কের সুযোগ করে দিতে করবিনের প্রার্থিতা জরুরি। সর্বশেষ কয়েক মাস আগে নেতৃত্ব থেকে করবিনকে সরিয়ে দিতে দলের সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপি করবিনের প্রতি অনাস্থা ভোট দেন। এই ভোটাভুটিতেও টিউলিপ করবিনের প্রতি আস্থা রেখে ভোট দেন। সর্বশেষ অনুষ্ঠিত লেবার নেতা নির্বাচনে টিউলিপ বলেছিলেন, করবিনের প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়েন স্মিথকে সমর্থন দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, তিনি চান ওয়েন নেতা নির্বাচিত হোক। কিন্তু শেষ পর্যন্ত যিনিই নেতা নির্বাচিত হোন না কেন, বিভাজন বাদ দিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। করবিন পুনরায় নেতা নির্বাচিত হওয়ার পর টিউলিপ দেশ ও দলের প্রয়োজনে লেবার পার্টিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। সূত্র : ওয়েবসাইট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাজ্যের ছায়া প্রতিমন্ত্রী টিউলিপ
আরও পড়ুন