Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

অভিভাবক হারালো চট্টগ্রামের ক্রীড়াঙ্গন

বরেণ্য ক্রীড়া সংগঠক আজগর চৌধুরী আর নেই

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

জাতীয় পুরষ্কার প্রাপ্ত ক্রীড়া সংগঠক আলহাজ্ব সাহেদ আজগর চৌধুরী আর নেই। গতকাল স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। এসময় তিনি স্ত্রী, ৫ কন্যা ও নাতী-নাতিনীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। গতকাল বেলা পৌনে ৪টায় এম. এ. আজিজ স্টেডিয়াম প্রাঙ্গনে মরহুমের প্রথম জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এখানে সিজেকেএস এর সাধারণ সম্পাদক ও নব নির্বাচিত বিসিবির পরিচালক আ.জ.ম নাছির উদ্দীনসহ ক্রীড়াঙ্গনের সর্বস্তরের ক্রীড়াবিদরা উপস্থিত ছিলেন। বাদ আসর জমিতুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ প্রাঙ্গনে দ্বিতীয় জানাজা শেষে বরণ্য ক্রীড়া সংগঠককে স্টেশন রোডস্থ চৈতন্যগলি পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

১৯৪১ সালে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী সম্ভ্রান্ত পরিবারে আলহাজ্ব সাহেদ আজগর চৌধুরী শৈশব থেকেই লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধূলায় ছিলেন পারদর্শী। তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানের আন্তঃকলেজ প্রাদেশিক অ্যাথলেটিক্স এর ১০০ মিটার ও ২০০ মিটার দৌড়, শটপুট ও ডিসকাস থ্রো ইভেন্টে ১ম হয়ে কলেজ ব্লু খেতাব পেয়েছিলেন। অ্যাথলেটিক্সে টানা কয়েক বছর হেমার থ্রোতে গোন্ড জিতে চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ ক্রীড়াবিদের স্বীকৃতি পেয়েছিলেন। পরবর্তীতে পারিবারিক সংগঠন স্টার ক্লাবের হয়ে শুরু করেন ক্রিকেট। সিজেকেএস ক্রিকেট লিগের ১৯৭৬ ও ১৯৭৭ সালে দুই মৌসুম স্টার ক্লাব হয়েছিল রানার্স আপ।

কর্মজীবনে একজন সফল ব্যবসায়ী হয়েও ক্রীড়াঙ্গনে এক নিবেদিত সংগঠক হিসেবে স্বীয় সাংগঠনিক তৎপরতা অব্যহত রেখে ছিলেন। চট্টগ্রাম মোহামেডান স্পোটিং ক্লাবের সভাপতি হিসেবে সাতবার দায়িত্ব পালন করেন। সিজেকেএস এর পরপর তিনবার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়া চট্টগ্রাম বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি, অ্যাথলেটিক্স ও ক্রিকেট কমিটির সম্পাদকসহ সিজেকেএস এর বিভিন্ন দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) দুইবারের সদস্যও ছিলেন। তাঁর পারিবারিক সংগঠক স্টার ক্লাবের আজীবন সভাপতি হয়ে দেশ-বিদেশে সাড়া জাগানো স্টার সামার ক্রিকেট টুর্ণামেন্টে সফল আয়োজকের পাশাপাশি স্টার যুব ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট চালিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অনেক ক্রিকেটার সৃষ্টি করায় বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির পুরস্কারেও ভূষিত হয়েছিলেন। গত ২ অক্টোরব চট্টগ্রাম খেলোয়াড় সমিতির নির্বাচনেও ভোট দিতে এসেছিলেন। সবকিছু ছেড়ে এখন তিনি শুধুই স্মৃতি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্টগ্রামের ক্রীড়াঙ্গন
আরও পড়ুন