Inqilab Logo

সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আবারো পরীমনির বাসায় চয়নিকা চৌধুরী

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০২১, ১০:৫৬ এএম

কারাগার থেকে জামিনে পরীমনি মুক্ত হওয়ার পর অনেকের সঙ্গে দেখা গেলেও দেখা যায়নি চয়নিকার সঙ্গে। এবার দেখা গলো কারামুক্তির প্রায় দুই মাস পর। বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাতে পরীমনির নতুন বাসায় নায়িকার পাশে আবার দেখা গেলো চয়নিকাকে। বিশেষ কারণেই তাদের আবার একসঙ্গে হওয়া।

গতকাল শুক্রবার (৮ অক্টোবর) মুক্তি পেয়েছে ‘পদ্মাপুরান’ সিনেমাটি। এই সিনেমা দিয়েই নির্মাতা হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিষেক হলো রাশেদ পলাশের। ‘পদ্মাপুরান’-এর মুক্তি উপলক্ষে পরীমনির বাসায় ধারণ করা একটি ভিডিও বার্তায় শুভ কামনা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী নিজেই। সে ভিডিও বার্তায় পরীমনির পাশে বসে আছেন চয়নিকা। এ সময় পরীমনি অভিনীত ‘অ্যাডভেঞ্জার অব সুন্দরবন’ ছবির নির্মাতা আবু রায়হান জুয়েলও ছিলেন।

ভিডিওতে পরীমনি বলেছেন, ‘‘রাশেদ পলাশের একটি ছবিতে আমি কাজ করছি। ছবির নাম ‘প্রীতিলতা’। এখানে প্রায় দুই বছরের জার্নি আমাদের। এই সময়টিতে আমি তার কাছ থেকে শুনেছি, জানতে পেরেছি, ‘পদ্মাপুরান’ সিনেমায় কাজ করতে গিয়ে শিল্পী ও কলাকুশলীদের বড় রকমের ত্যাগ আছে। সে কথা বিবেচনা করে আমাদের সবারই একটা দায়িত্ব আছে, ছবিটির পাশে দাঁড়ানো।’’

ভিডিও বার্তার শেষে গিয়ে তিনি বলেছেন, ‘শুনেছি, এই ছবিতে যিনি প্রধান নারী চরিত্রটি করেছেন, চরিত্রের প্রয়োজনে তাঁর মাথার চুল বিসর্জন দিয়েছেন। একজন বাঙালি নারীর চুল কিন্তু বড় আবেগের জিনিস। সিনেমার জন্য সেই আবেগকে ত্যাগ করেছেন তিনি। এটি কিন্তু কম কথা নয়।’ প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে সিনেমাটি দেখতে তার ভক্ত-দর্শকদের আহ্বান জানিয়ে ভিডিওর আরেক অংশে এই ঢালিউড তারকা বলেছেন, ‘‘আমার ভক্ত-দর্শকেরাও হলে গিয়ে ‘পদ্মাপুরান’ দেখবেন, সেই প্রত্যাশা। আমরা চাই, দলে দলে দর্শকের অংশগ্রহণে হল ভরে যাক। টিকিট ফুরিয়ে যাক।’’

‘পদ্মাপুরান’ ছবিটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদিয়া মাহি, প্রসূন আজাদ, শম্পা রেজা, জয়রাজ, সুমিত সেনগুপ্ত, কায়েস চৌধুরী, সূচনা শিকদার, রেশমী, হেদায়েত নান্নু, আশরাফুল আশিষ, সাদিয়া তানজিন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরীকে নিজের মা বলেই সম্মোধন করে থাকেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। বিভিন্ন সময় তাদের দু’জনকে একসঙ্গে দেখাও গেছে। পরীমনির বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে সবসময় পাশে ছিলেন এই নারী নির্মাতা। মাদক মামলায় পরীমনি আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চয়নিকাকেও নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো ডিবির কার্যালয়ে। সে সময় বিষয়টি নিয়ে অনেক জল্পনা হলেও ডিবি জানিয়েছিলেন কেবল জিজ্ঞাসাবাদের জন্যই তাকে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে আসা। এরপর পর থেকে পরীমনির পাশে আর দেখা যায়নি এই নির্মাতাকে। পরীমনিকে নিয়ে একটা ওয়েব ফিল্ম নির্মাণের কথা থাকলেও সেটার শুটিংয়েরও কোনো খবর দিতে পারছিলেন না তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরীমনি-চয়নিকা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ