Inqilab Logo

সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ৩০ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

প্রাথমিক তালিকায় মেসি-রোনালদো-নেইমার

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

এবারের ব্যালন ডি’অর এমনিতেই বিশেষ। কারণ দুই বছরের অপেক্ষা শেষে হতে যাচ্ছে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন। করোনাভাইরাসের কারণে গত বছর দেওয়া হয়নি ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদার পুরস্কারটি। আর এবার ফিরছে উত্তেজনার চাদরে মুড়িয়ে। লিওনেল মেসি, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পে, রবার্ত লেভানদোভস্কি-সবাই আছেন ফ্রান্স ফুটবলের ঘোষিত ৩০ জনের তালিকায়। তবে কার হাতে পুরস্কারটি উঠছে, কে ফেভারিট, ঘোষণার আগে সেটা বের করা বেশ মুশকিল।
তাই বলা হচ্ছে ব্যালন ডি’অরের ইতিহাসের সবচেয়ে জমজমাট লড়াই হতে যাচ্ছে এবার। গত দশকে পুরস্কারটিতে আধিপত্য বিস্তার করে রেখেছেন মেসি ও রোনালদো। ৩০ জনের মনোনয়নে প্রত্যাশামতো আছেন তারা। তবে বেশিরভাগ সময় যেটা হয়েছে, এদের দুজনের কেউই জিততে যাচ্ছেন কিংবা যেকোনও একজন ফেভারিট, এমন ভবিষ্যদ্বাণী হয়েছে। তবে এবারের ব্যালন ডি’অর তাদের সঙ্গেও আমলে নিতে হচ্ছে আরও কয়েককটি নাম।
একমাত্র গোলকিপার হিসেবে মনোনয়ন পাওয়া জিয়ানলুইজি দোনারুম্মার কথাই ধরা যাক। গত মৌসুমে এসি মিলানে দারুণ সময় কাটিয়ে এখন প্যারিস সেন্ত জার্মেইয়ে নাম লিখিয়েছেন। ইতালির ইউরো জয়ে এই গোলকিপারের অবদান অসামান্য। পেনাল্টিতে তার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সেই ইউরোপসেরার মুকুট জিতেছে আজ্জুরিরা।
তার সতীর্থ জর্জিনিয়ো চেলসির হয়ে আবার জিতেছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ। একই সঙ্গে ইউরো ও চ্যাম্পিয়নস লিগ, অনেকের বিচারে জর্জিনিয়ো ব্যালন ডি’অর জয়ে এগিয়ে। এই যদি হয় পরিসংখ্যান, তাহলে লেভানদোভস্কিইবা পিছিয়ে কেন! গত মৌসুমে গোলের বৃষ্টি ঝরিয়েছেন রীতিমতো। বুন্দেসলিগায় এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ভেঙেছেন তিনি। জার্ড মুলারকে সরিয়ে নতুন ইতিহাস গড়েছেন। জর্জিনিয়োর চেলসি সতীর্থ এনগোলো কঁতেও তো চ্যাম্পিয়নস লিগের জয়ের অন্যতম কারিগর।
২৯ নভেম্বর ঘোষণা করা হবে ব্যালন ডি’অর জয়ীর নাম। মঞ্চে সবচেয়ে বেশি সদস্য থাকবেন ম্যানচেস্টার সিটির। চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে হারলেও প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতেছে তারা। সেই কারণে ৩০ জনের তালিকায় পাঁচজন সিটির- রুবেন দিয়াস, ফিল ফোডেন, রিয়াদ মাহারেজ, রহিম স্টার্লিং ও কেভিড ডি ব্রুইনা।
মনোনয়ন পাওয়া ৩০
গোলকিপার : জিয়ানলুইজি দোনারুম্মা (পিএসজি)। ডিফেন্ডার : লিওনার্দো বনুচ্চি (জুভেন্টাস), জর্জিও কিয়েল্লিনি (জুভেন্টাস), সিমন কিয়ার (এসি মিলান), চেসার আজপিলিকুয়েতা (চেলসি), রুবেন দিয়াস (ম্যানচেস্টার সিটি)। মিডফিল্ডার : এনগোলো কঁতে (চেলসি), ম্যাসন মাউন্ট (চেলসি), নিকোলো বারেল্লা (ইন্টার মিলান), ব্রুনো ফের্নান্দেস (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), পেদ্রি (বার্সেলোনা), লুকা মদরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), কেভিড ডি ব্রুইনা (ম্যানচেস্টার সিটি), জর্জিনিয়ো (চেলসি), ফিল ফোডেন (ম্যানচেস্টার সিটি)। ফরোয়ার্ড : রিয়াদ মাহারেজ (ম্যানচেস্টার সিটি), আরলিং হরলান্ড (বরুসিয়া ডর্টমুন্ড), হ্যারি কেইন (টটেনহাম), করিম বেনজেমা (রিয়াল মাদ্রিদ), রহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি), লিওনেল মেসি (পিএসজি), নেইমার (পিএসজি), লাউতারো মার্তিনেস (ইন্টার মিলান), রবার্ত লেভানদোভস্কি (বায়ার্ন মিউনিখ), মোহামেদ সালাহ (লিভারপুল), রোমেলু লুকাকু (চেলসি) ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (ম্যানচেস্টার ইউইনাইটেড), কিলিয়ান এমবাপ্পে (পিএসজি), জেরার্দ মোরেনো (ভিয়ারিয়াল), লুইস সুয়ারেস (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মেসি-রোনালদো-নেইমার
আরও পড়ুন