Inqilab Logo

বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সিরিয়ার সঙ্গে সকল ক্ষেত্রে সম্পর্ক শক্তিশালী করবে ইরান

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৯:১৫ এএম

পর্যটন ও পুঁজি বিনিয়োগসহ সকল ক্ষেত্রে সিরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করার প্রত্যয় জানিয়েছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান। তিনি শনিবার দামেস্কে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

গত পাঁচ সপ্তাহে এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বাশার আল-আসাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন আব্দুল্লাহিয়ান। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ সময়ের মধ্যে দু’দেশের প্রেসিডেন্টরা টেলিফোনালাপে বেশ কিছু বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছেছেন যেগুলো তিনি এবং সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল মিকদাদ বাস্তবায়নের চেষ্টা করবেন। আব্দুল্লাহিয়ান এসব সমঝোতার বিস্তারিত বিবরণ প্রকাশ না করে বলেছেন, শিগগিরই ফয়সাল মিকদাদ তেহরান সফর করবেন।

সিরিয়ায় ২০১১ সালে বিদেশি মদদে সহিংসতা চাপিয়ে দেয়ার পর গত ১০ বছরের গৃহযুদ্ধে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামোর মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে।

সিরিয়া বর্তমানে নতুন যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছে উল্লেখ করে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নতুন যুগে সিরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করবে তেহরান। তিনি আরো বলেন, কঠিন দুঃসময়ে নিজের কৌশলগত মিত্রের পাশে ছিল ইরান এবং এখন যখন পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে তখনও সিরিয়াকে একা ছেড়ে যাবে না তেহরান।

সাক্ষাতে প্রেসিডেন্ট বাশার আসাদ সম্প্রতি তার দেশে সাফল্যের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা স্মরণ করেন।ওই নির্বাচনে আসাদ ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়ে পুনর্নির্বাচিত হন।

সাক্ষাতে আফগানিস্তান প্রসঙ্গেও কথা বলেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।প্রেসিডেন্ট আসাদ বলেন, আফগানিস্তান যাতে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত না হয় সেজন্য ইরানকে চেষ্টা চালাতে হবে। এর জবাবে আব্দুল্লাহিয়ান বলেন, “তালেবানসহ আফগানিস্তানের সকল পক্ষের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ রয়েছে এবং আমরা চেষ্টা করছি যাতে আফগানিস্তানে একটি অংশগ্রহণমূলক সরকার গঠিত হয়।”

সূত্র: পার্সটুডে

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন