Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

দক্ষিণাঞ্চলে ডেঙ্গু পরিস্থিতির অবনতি অব্যাহত আক্রান্ত ৩২৮

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৫:১০ পিএম

দক্ষিণাঞ্চলে ডেঙ্গু পরিস্থিতির কোন উন্নতি হচ্ছে না। প্রতিদিনই সরকারী হাসপাতালগুলোতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। পাশাপাশি ডেঙ্গু মশা প্রতিরোধে বিভিন্ন পৌরসভা সহ বরিশাল সিটি করপোরেশনের তেমন যোড়াল পদক্ষেপও লক্ষনীয় নয়। তবে এ অঞ্চলে এখনো ডেঙ্গুতে কোন মৃত্যু সংবাদ নেই।
দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলার বিভিন্ন সরকারী হাসপাতালে এপর্যন্ত যে ৩২৮ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসার জন্য এসেছেন,তার মধ্যে সেপ্টেম্বর মাসের ৩০ দিনেই সংখ্যাটা ২২১। আর চলতি মাসের প্রথম ১০ দিনেই শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৫০ জন। এ পরিসংখ্যান অনুযায়ী ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ক্রমবর্ধমান।
বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের মতে, শনাক্ত ৩২৮ জনের মধ্যে এপর্যন্ত ২৮২ জনকে বরিশাল ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সহ বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ২৫৬ জন। রোববার দুপুর পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ২৬ জন। এরমধ্যে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২ জন ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৯ জন ছাড়াও ভোলা, পিরোজপুর ও বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন আরো ৫ জন।
গত ২৪ ঘন্টায় নতুন শনাক্ত ৫ জনের মধ্যে পটুয়াখালীতে ৪ জন এবং পিরোজপুরে একজন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। দক্ষিণাঞ্চলে এপর্যন্ত শনাক্ত ৩২৮ জনের মধ্যে বরিশালেই ১৩৫ জন। যার প্রায় শতাধীকই মহানগরীতে। এছাড়া পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও জেলার অন্যান্য হাসপাতালে ৯৩ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। ভোলাতে সংখ্যাটা ৪৭, বরগুনায় ৩০, পিরোজপুরে ১৬ জন এবং ঝালকাঠীতে ৭ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে বরিশাল সিটি করপোশেনের কনজার্ভেন্সী বিভাগের প্রধান ডাঃ রবিউল ইসলাম জানান, আমাদের ১২টি ফগার মেশিন দিয়ে নগরীর ৩০ ওয়ার্ডে মশক নিধন অভিযান চালছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ সহ ধর্মীয় উপসনালয়ে মশা নির্মূলের কার্যক্রম চলছে বলেও জানান তিনি। তবে নগরীর বিভিন্নস্থানে ঝোপঝাড় সহ অপরিচ্ছন্ন ড্রেন ও নালাগুলো সম্পর্কে তার দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে এ ব্যাপারেও কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে বলে দাবী করেন তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন