Inqilab Logo

সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

চীন-ভারত ১৩তম বৈঠকও ব্যর্থ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০২ এএম

লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় (এলএসি) ১৩তম বৈঠকের পর ফের একবার লাদাখ সমস্যা নিয়ে ভারতকে দোষারোপ করেছে চীন। এলএসসির কাছে চুসুলের মোল্ডোতে সেনা কর্মকর্তা পর্যায়ের ১৩তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় রোববার। তবে এই বৈঠকের পরও সীমান্ত সমস্যা নিয়ে কোনও সমাধান সূত্র পাওয়া যায়নি। ১৩তম বৈঠকের পর ফের একবার লাদাখ সমস্যা নিয়ে সরাসরি ভারতকে দোষারোপ করেছে চীন। চীনা সরকারের মিডিয়া গ্লোবাল টাইমস অনুযায়ী, ওয়েস্টার্ন কমান্ড বৈঠকের পর চীন জানিয়েছে, ভারত নাকি অযৌক্তিক এবং অবাস্তব দাবির উপর জোর দেয়, তাই আলোচনা করতে তাদের অসুবিধা হচ্ছে। চীনা সেনার তরফে ওয়েস্টার্ন থিয়েটার কমান্ডের মুথপাত্র বৈঠকের বিষয়ে বলেন, ‘সীমান্তে পরিস্থিতি স্থিতিশীল করতে প্রচেষ্টা চলছে এবং দুই সামরিক বাহিনী নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য সম্পূর্ণরূপে আন্তরিকতা প্রদর্শন করেছে।’ চীনের তরফে আরও আশা ব্যক্ত করা হয়, ‘ভারত আন্তরিকতা দেখাবে, পদক্ষেপ নেবে এবং সীমান্ত এলাকায় শান্তি ও স্থিতিশীলতা যৌথভাবে রক্ষার জন্য চীনের সাথে কাজ করবে।’ পূর্ব লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় বিগত ১৬ মাস ধরে একটানা সীমান্ত সমস্যা চলছে ভারত আর চীনের মধ্যে। বিতর্কিত অঞ্চল থেকে সেনা সরানো নিয়ে ১৩টি বৈঠক হয়ে গিয়েছে দু’দেশের সামরিক আধিরকারিকদের মধ্যে। তবে সমাধান সূত্র এখনও বেরিয়ে আসেনি। সূত্রের খবর, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় এখনও পর্যন্ত মোটামুটি ১৮টি বিতর্কিত পয়েন্টকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই স্থানগুলো সংক্রান্ত যাবতীয় বিবাদ ধাপে ধাপে মেটাতে চাইছে ভারত। এদিকে লাদাখের উত্তাপ ছড়িয়েছে অরুণাচল প্রদেশেও। সেখানে কয়েকদিন আগেই চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি-র ২০০ জন সেনাকে সীমান্ত পার করা থেকে বিরত রাখেন ভারতীয় জওয়ানরা। এলএসি-র তাওয়াং সেক্টরে ইয়াংসে-র কাছে মুখোমুখি হয় দুই সেনা। তবে ঘটনায় কোনও হতাহতের বা ক্ষয়ক্ষতির খবর মেলেনি। হিন্দুস্থান টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-ভারত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ