Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সিলেট জেলা-মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা : পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

দীর্ঘ ৪ বছর পর গতকাল সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। তবে কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠেছে রাজপথ। দুপুরে কমিটি ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সিলেট জেলা ছাত্রলীগের কমিটি প্রত্যাখান করে মিছিল করেছে দলের পদ বঞ্চিত নেতাকর্মীরা। মিছিল থেকে তারা কেন্দ্রের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে কমিটির শীর্ষ পদ বিক্রির অভিযোগ তুলে নানা ¯েøাগান দেন বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি প্রত্যাখান করে বেলা ৫টায় নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে টায়ার জ¦ালিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

এদিকে, ঘোষিত কমিটিতে কেন্দ্রীয় সদস্য পদ প্রত্যাখান করেছেন জাওয়াদ ইবনে জাহিদ খান ও মুহিবুর রহমান মুহিব। গতকাল বিকেলে নিজেদের ফেসবুক একাউন্টে স্ট্যাটাস দিয়ে প্রাপ্ত পদ প্রত্যাখান করেন এই দুই নেতা। পদ প্রত্যাখানকারীদের মধ্যে জাওয়াদ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। বর্তমান কমিটিতে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রত্যাশী ছিলেন তিনি।

গতকাল দুপুর ১২টার দিকে কেন্দ্র থেকে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে টিলাগড় গ্রæপের নাজমুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রাহেল সিরাজের নাম ঘোষণা করা হয়। এছাড়া মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে দর্শন দেউড়ি গ্রæপের কিশওয়ার জাহান সৌরভ ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে কাশ্মির গ্রæপের নাঈম আহমদের নাম ঘোষণা হয়। এছাড়া কেন্দ্রীয় সদস্য হিসেবে ঘোষণা করা হয় ৬ জনের নাম। তারা হলেন- জাওয়াদ ইবনে জাহিদ খান, বিপ্লব কান্তি দাস, মুহিবুর রহমান মুহিব, কনক পাল অরূপ, হোসাইন মোহাম্মদ সাগর ও সঞ্জয় পাশী জয়।
এই কমিটি ঘোষণার পর ছাত্রলীগের একাংশের মধ্যে দেখা দেয় চরম ক্ষোভ। জাওয়াদকে সাধারণ সম্পাদক না করে কেন্দ্রীয় সদস্য করায় এ গ্রæপের নেতাকর্মীরা বিকেল ৪টায় তেলিহাওর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি নগরীর জিন্দাবাজার আল-হামরা মার্কেটের সামনে আসলে পুলিশ মিছিলকারীদের বাধা দেয়। পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে সামনে অগ্রসর হয় মিছিলটি। চৌহাট্টা পয়েন্টে গিয়ে বিক্ষোভকারী নেতাকর্মীরা সড়ক অবরোধ করেন টায়ার জ্বালিয়ে। কিছু সময় সড়ক অবরোধ শেষে ফিরে যান তারা। পরবর্তীতে সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজের বাসায় হামলার ঘটনা ঘটে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিক্ষোভ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ