Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বিতর্কিতদের হাতে নৌকা

ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন হাজার হাজার অভিযোগ ব্যবস্থা কম

ইয়াছিন রানা | প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

দ্বিতীয় ধাপের আসন্ন ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তফসিল ঘোষণার পর থেকে সরগরম আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির অফিস। এক প্রার্থী অন্য প্রার্থীর বিরুদ্ধে দিয়েছেন অভিযোগ। প্রার্থী চূড়ান্ত করার আগে প্রায় লাখের কাছাকাছি অভিযোগ পড়েছে আওয়ামী লীগের দফতরে। প্রার্থী চূড়ান্ত করার পর পড়ছে দলের মনেনয়ন পাওয়াদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ। অভিযোগের সূত্রে জানা গেছে, মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারীর পুত্র ও নাতি, বিএনপি নেতা, জামায়াত-শিবিরের নেতা, খুনের আসামি, নারী নির্যাতন মামলার আসামি, রোহিঙ্গাদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত, বিধবা ভাতার কার্ড নিয়ে প্রতারণা এবং গরিবের চাল বিক্রি করে সমালোচিত চেয়ারম্যানরাও দলের মনোনয়ন পেয়েছেন।

তবে হাজার হাজার অভিযোগের প্রেক্ষিতে দলের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে গুটি কয়েক। গতবারের বেশিরভাগ চেয়ারম্যানই পুনরায় দলের মনোনয়ন পেয়েছেন। এছাড়া জেলা সংগঠন থেকে বিতর্কিত নেতাদের নাম কেন্দ্রে পাঠানো, সাক্ষর জালিয়াতি করে নাম পাঠানোর ঘটনাও ঘটেছে। আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড থেকে বারবার হুশিয়ারি করা হলেও জেলা উপজেলা থেকে বিতর্কিতদের নাম পাঠানো বন্ধ করেনি তারা। অনেক তৃণমূল সংগঠন থেকে নামও পাঠায়নি কেন্দ্রে।

আওয়ামী লীগের দফতর সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হলেও প্রার্থীদের নামে অভিযোগ আসা শেষ হয়নি। প্রতিদিনই অভিযোগ আসছে।, যে সব অভিযোগ আসে তা প্রতিদিনই সুন্দর করে লিখিত আকারে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। দফতর সূত্রে আরো জানা গেছে, মনোনয়ন বোর্ডের মিটিং চলাকালীন সময়ে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ এসছে। তখন ইউনিয়নের প্রার্থীদের নামের পাশে কার বিরুদ্ধে কী অভিযোগ তা নোট করে লিখে পাঠানো হতো। বর্তমানেও অভিযোগের বিষয় যাচাই বাছাই করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়ায়দুল কাদের বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে মনোনয়ন নিয়ে প্রার্থীদের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ সেগুলো যাচাই করা হচ্ছে। অভিযোগের সত্যতা প্রমাণ হলে প্রয়োজনে সংশোধন করা হবে।

হাজার হাজার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেয়ার ঘটনা কম কেন সে বিষয়ে আওয়ামী লীগের একজন নীতি-নির্ধারক বলেন, অনেক অভিযোগ পাই। মনোনয়ন প্রাপ্তরা চাল চুরি করেছে, গম চুরি করেছে, সরকারি কাজের অর্থ আত্মসাত করেছে, মাদক, অবৈধ কাজের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু যখন প্রমাণ দিতে বলি তখন আর তারা প্রমাণ পায় না। প্রমাণ না থাকলে তো কারো বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যায় না। বেশিরভাগ অভিযোগেরই কোন প্রমাণ অভিযোগকারী দিতে পারেনি। তাই ব্যবস্থা গ্রহণও সম্ভব হয়নি। তবে যারা অভিযোগের সাথে প্রমাণ দিয়েছেন সেখানে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলী সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ইনকিলাবকে বলেন, অভিযোগ করলেই হবে না। অভিযোগের সত্যতাও থাকতে হবে। অভিযোগের সত্যতা পেলে মনোনয়ন বাতিল করা হবে।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম আবারও দলের মনোনয়ন পেয়েছেন। তার বিরুদ্ধে মনোনয়নের আগে ও পরে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম ‘সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় জড়িত’ এবং ‘নারী নির্যাতন মামলা’র আসামি। তার বিরুদ্ধে হিন্দু বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও যুবলীগ নেতার বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগ রয়েছে। তার অত্যাচার নির্যাতনের কারণে ৬নং রাজগঞ্জ ইউনিয়নের সংখ্যালঘু পরিবার/ব্যক্তিবর্গ নিরাপদ নয় এবং প্রতিনিয়ত আতঙ্কে জীবনযাপন করতে হয়। বিগত পাঁচ বছরে এলাকার সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বিভিন্ন হামলা, মামলা, অনিয়ম, অকল্পনীয় দুর্নীতি ও নির্যাতনের শিকার হয়ে এলাকা ছেড়েছে। মনোনয়ন পুনরায় বিবেচনার জন্য আবেদন করা হয়েছে।

পটুয়াখালী সদর উপজেলাধীন মরিচবুনিয়া ইউনিয়নে আসাদুল ইসলাম আসাদ মনোনয়ন পেয়েছেন। তার আপন বড় ভাই মো. রফিকুল ইসলাম মুন্সি মরিচবুনিয়া ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক। এছাড়া আসাদের আপন মামাশ্বশুর মরিচবুনিয়া ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক। আসাদ মনোনয়ন পাওয়ায় আওয়ামী লীগের ধানমন্ডির অফিসের সামনে বিক্ষোভ হয়েছে। বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার সৈয়দকাঠি ইউনিয়নে আনোয়ার হোসেন মৃধা মনোনয়ন পেয়েছেন। আনোয়ার উপজেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি, ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক এবং সাবেক সহসভাপতি।

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা বাহাদুরপুর ইউনিয়নে যুবলীগের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি সোহেল রানা পবন মনোনয়ন পেয়েছেন। বগুড়ায় ২০ ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনয়নপ্রাপ্তদের মধ্যে কেউ জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত, কারো বিরুদ্ধে হত্যা মামলা, কেউ মানবিক সহায়তার অর্থ আত্মসাৎকারী। আবার কারো বিরুদ্ধে সরকারি গাছ কাটা, মাদক ব্যবসা, বিরোধী দলের সঙ্গে ব্যবসা করাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। নাটোরের বড়াইগ্রামে একটি ইউপিতে জামায়াত নেতার মেয়েকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ রনিখাই ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে ইসলামী ছাত্র শিবিরের সাবেক উপজেলা সেক্রেটারি ইকবাল হোসেন ইমাদ মনোনয়ন পেয়েছেন। ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া সদর ইউনিয়নে নৌকা প্রার্থী আতাহার আলী শিবির করতেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

বান্দরবানের লামা উপজেলার রূপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ছাচিং প্রু মারমা। ছাচিং প্রু মারমার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, টাকার বিনিময়ে রোহিঙ্গাদের ভোটার করা ও জন্ম সনদ বাণিজ্য, ভূমিহীনদের ঘর দিতে ঘুষ নেওয়া, সাংবাদিক নির্যাতন, রাস্তা সংস্কারের টাকা আত্মসাৎ, সৌর বিদ্যুতের প্যানেল বিতরণে বাণিজ্যের অভিযোগ রয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণ ও সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় মামলাও হয়েছে।
নারায়ণগঞ্জ সদরের কুতুবপুরে ইউপি নির্বাচনে বিএনপির বহিষ্কৃত নেতাকে মনিরুল আলমকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী করা হয়েছে। তিনি ফতুল্লা থানা বিএনপির সহসভাপতি ছিলেন। পরে বহিষ্কৃত হন।

শরীয়তপুর সদর উপজেলার মাহমুদপুর ইউপিতে মনোনয়ন পেয়েছেন ইতালি প্রবাসী মো. শাহ আলম। তিনি নিজে মনোনয়ন ফরম জমা দেননি এবং ফরমে তার সাক্ষর অন্য একজন দিয়েছে। কিন্তু ফরম অন্য কেউ তুললেও প্রার্থী নিজে ফরম জমা না দিলে ফরম জমা নেয়ার সুযোগ নেই আওয়ামী লীগের দলীয় নির্দেশনায়। তাই তার মনোনয়ন নিয়ে নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা।
নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও ছাত্রদলের সাবেক সদস্য সচিব আশরাফুল হক। তার বাবা প্রয়াত সিরাজুল হকও বাঁশগাড়ী ইউপির চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি রায়পুরা উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতিও ছিলেন।

পটুয়াখালীর দশমিনা ইউনিয়নে গতবারের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে বিজয়ী হওয়া ইকবাল মাহমুদ লিটন এবারও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার বিহার ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মহিদুল ইসলাম। তার বিরুদ্ধে যুবলীগ কর্মী ওমর ফারুক, আওয়ামী লীগ কর্মী শিমুল হত্যাসহ তিনটি মামলা রয়েছে। একটি চাঁদাবাজির মামলাও আছে। এরমধ্যে একটি মামলায় তিনি যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি। একই উপজেলার বুড়িগঞ্জ ইউপিতে মনোনয়ন পাওয়া রেজাউল করিম চঞ্চলকে র‌্যাব বিশেষ ক্ষমতা আইনে মাদকপাচারের দায়ে গ্রেফতার করে।

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ময়দানহাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এসএম রূপম। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় তাকে চেয়ারম্যান পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়। পরে তিনি উচ্চ আদালতে আপিল করলে সেই আদেশ স্থগিত হয়। রায়নগর ইউনিয়নে মনোনয়ন পাওয়া শাহজাহান কাজী স্থানীয় বাঘমারা মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সহ-সভাপতি। ওই মাদ্রাসার গাছ চুরির অপরাধে জেলও খাটেন তিনি।



 

Show all comments
  • Alimul islam ১৪ অক্টোবর, ২০২১, ১:৪৫ এএম says : 0
    খুলনার ডুমুরিয়া মাগুরাঘোনা ইউনিয়নে উপজেলা নৌকার বিরোধিতা কারি নৌকা পেয়েছে নৌকার লকের উপর জুলুম নির্যাতন হামলা করেন প্রার্থীর বাবা জামাত করেন এমন নজির আছে এ ব্যাপারে এলাকা বাসি নারাজ কোন প্রচার প্রচারনা নেই এ ব্যাপারে দলকে একটু খতিয়ে দেখার জন্য অনুরোদ করা হচ্ছে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি নির্বাচন

১৪ অক্টোবর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ