Inqilab Logo

রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২২ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সাধারণরা খাচ্ছে অখাদ্য খেলোয়াড়দের জন্য করা হচ্ছে বিশাল আয়োজন, ক্ষোভে ফুঁসছেন মানুষ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০২১, ২:১২ পিএম

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেশি থাকায় এখনো বেশ কয়েকটি দেশকে লাল তালিকাভুক্ত করে রেখেছে ইংল্যান্ড। এর মধ্যে রয়েছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনাসহ লাতিন আমেরিকার সব দেশ।

আর লাল তালিকাভুক্ত দেশগুলো থেকে যদি কেউ ইংল্যান্ডে আসে তাহলে তাকে ১০ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এ কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টি নিয়ে গত মাসে ব্যপক ঝামেলায় পরেছিল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ ও ক্লাবগুলো।

যেহেতু লাতিন আমেরিকা থেকে এলে ১০দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে, তাই বেশ কয়েকটি ক্লাব গত মাসে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে তাদের কয়েকজন খেলোয়াড়দের নিজ দেশে যেতেও দেয়নি। এ কারণে দেশগুলো ক্লাবগুলোর উপর ব্যপক ক্ষেপে যায়, এমনকি ফিফার কাছে করে নালিশ। ফলে এবার কোন খেলোয়াড়কে আটকাতে পারেনি ক্লাবগুলো।

এর জেরে ব্রিটিশ সরকারকে বলে শুধুমাত্র খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রে নিয়ম শিথিল করা হয়। এখন ব্রাজিল, আর্জেন্টিনাসহ যে দেশের খেলোয়াড়রা লাল তালিকাভুক্ত দেশ থেকে আসবেন ও করোনার পুরোপুরি ভ্যাকসিন দেয়া আছে তারা পরের দিন থেকেই অনুশীলন করার জন্য মাঠে নামতে পারবেন। কিন্তু যাদের ভ্যাকসিন দেয়া নেই তাদের থাকতে হবে হোটেলে।
কোয়ারেন্টাইন মানেই হলে বদ্ধ ঘর, একাকিত্ব, মানসিক যন্ত্রণা। এখন খেলোয়াড়ের এ ক্ষেত্রে যেন কোন সমস্যা না হয় তাই তাদের থাকার জন্য করা হচ্ছে রিসোর্ট বা খোলামেলা জায়গাসহ বিলাসবহুল হোটেল, যেন কোয়ারেন্টনইনের সময় খেলোয়াড়দের মধ্যে একটুও বিরক্তিভাব না আসে। এমনকি ক্লাবগুলো তাদের দলের বাবুর্চি দিয়ে সে সকল খেলোয়াড়দের খাবারের ব্যবস্থা করবে। বলা যায় সবকিছু মিলিয়ে এলাহি কান্ড।

তবে ঠিক একই জায়গা থেকে বা একই দেশ থেকে আসলেও বিপরীত চিত্র দেখতে হবে সাধারণ ইংল্যান্ডের মানুষদের। সাধারণের ক্ষেত্রে ব্রিটিশ সরকার কোন ছাড় দেয়নি। যেই আসবে তাদের প্রত্যেককে ১১ দিন করে কোয়ারেন্টাইনে হোটেল বন্দী থাকতে হবে, এমনকি সেটাও সরকার নির্ধারিত হোটেলে, নিজ খরচে। তবে সরকার নির্ধারিত এসব হোটেলের খাবারের মান নিয়ে অনেক আগেই কথা চলছে। এখন খেলোয়াড়দের বিশেষ সুবিধা দেয়ার বিষয়টি সামনে আসার পর নতুন করে সমালোচনা তৈরি হয়েছে। এটির ভুক্তোভুগি অনেকে বলছেন, বিশেষ সুবিধা না দিয়ে সকলের জন্য সবকিছুই সমান সমান রাখা উচিত। আবার কয়েকজন বলছে কোয়ারেন্টাইন নামক অত্যাচারে কবলে পরে তারা অখাদ্য খেয়েছেন, সেখানে কেন খেলোয়াড়দের বিশেষ সুবিধা দেয়া হবে। এটিকে অনেকে দ্বৈতনীতিও মনে হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

২৭ নভেম্বর, ২০২১
২৬ নভেম্বর, ২০২১
২২ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন