Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

ঢাবিতে ক্লাস শুরু আজ

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

করোনাভাইরাস মহামারি শুরু হওয়ার পর গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ (ঢাবি) দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দীর্ঘ ১৯ মাস বন্ধ থাকার পর আজ থেকে আবারও সশরীরে ক্লাস শুরু হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। এতো দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার কারণে ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে সৃষ্টি হয়েছে সেশনজট। তবে এই জট নিরসনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ‘লস রিকভারি প্ল্যান’ তৈরি করেছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ‘স্বাস্থ্যবিধি’ মেনে আজ রোববার থেকে চলবে সশরীরে পাঠদান ও পরীক্ষা। কোনো বিভাগ বা ইনস্টিটিউট চাইলে সর্বোচ্চ ৪০ শতাংশ ক্লাস ভার্চুয়ালি নিতে পারবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে পাঠদান ও পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনায় একাডেমিক কাউন্সিল প্রণীত ‘লস রিকোভারি প্ল্যান’ অনুসরণ করা হবে বলে জানান প্রো-ভিসি (শিক্ষা) প্রফেসর এএসএম মাকসুদ কামাল।

তিনি বলেন, পরীক্ষাসহ সেমিস্টার ৬ মাসের পরিবর্তে ৪ মাসে ও বার্ষিক কোর্স ১২ মাসের পরিবর্তে ৮ মাসে সম্পন্ন করা হবে। সিলোবাস সংকুচিত হবে না, অতিরিক্ত ক্লাস নেওয়ার পরিকল্পনা আছে। প্রয়োজনে শনিবারও ক্লাস নেওয়ার অনুমতি রয়েছে। আমাদের লক্ষ্য হলো মহামারীতে শিক্ষার্থীদের যে ক্ষতি হয়েছে, সেই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া। সেজন্য এরই মধ্যে শরৎকালীন ও শীতকালীন ছুটিও বাতিল করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগ ও ইনস্টিটিউটগুলোতে ফাইনাল পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশে সময়ও বেঁধে দেওয়া হয়েছে। মাকসুদ কামাল বলেন, ফল ঘোষণার ক্ষেত্রে সেমিস্টার পদ্ধতিতে ছয় সপ্তাহ ও বার্ষিক পদ্ধতিতে আট সপ্তাহের বেশি সময় নেওয়া যাবে না।

সেশনজট নিরসনে কি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আমরা চাই না কোন শিক্ষার্থী সেশনজটে পড়ুক। এজন্য আমাদের লস রিকভারি প্ল্যানরয়েছে, আমরা সে অনুযায়ী এগুবো। সেশনজট নিরসনে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
তিনি বলেন, প্রায় সব শিক্ষার্থীই টিকার আওতায় এসেছে। স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রয়োজনে শিক্ষার্থীদের একাধিক সেকশনে বিভক্ত করে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

এদিকে আগামী ২২ এবং ২৩ অক্টোবর ব্যাবসায় অনুষদভুক্ত ‹গ› ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‹ঘ› ইউনিটের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার পর থেকে শুক্রবার ও শনিবার ছুটির দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাকার চালু থাকবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারিক (ভারপ্রাপ্ত) ড. মো. নাসিরউদ্দিন মুন্সী।

তিনি বলেন, যেহেতু আমাদের গ্রন্থাগারগুলোতেও ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র রাখা হয়েছে তাই আপাতত পরীক্ষা শেষ না হওয়া অবধি শুক্রবার ও শনিবার আমাদের গ্রন্থাগারগুলো বন্ধ থাকছে। কিন্তু আগামী ২৩ তারিখের পর সকল ভর্তি পরীক্ষা শেষ হবে এবং আমরা যথারীতি শুক্র-শনিবারেও আমাদের গ্রন্থাগারগুলো খুলে দিব।
এছাড়াও আজ থেকে পূর্বের ন্যায় পুরোদমে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চালু হবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন ম্যানেজার আতাউর রহমান। তিনি বলেন, এর আগে ২৬ সেপ্টেম্বর আমরা সীমিত পরিসরে বাস চালু করেছি। আর এখন যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত শিক্ষা কার্যক্রম চালু হচ্ছে তাই আমরা শিক্ষার্থীদের সুবিধায় পুনরায় আগের মত সব বাস চালু করব।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঢাবি

১৫ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন