Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সউদী দম্পতিরা সৈকত-সঙ্গীত উপভোগে মুক্ত

শিথিল বিধিনিষেধ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

আসমার জন্য কিছুকাল আগেও তার সঙ্গীর সঙ্গে সউদী আরবের সমুদ্র সৈকতে একটি দিন কাটানো কল্পনাতীত ছিল। এখন, ৩২ বছর বয়সী আসমা তার সাথীর সঙ্গে লাল সাগরের তীরে সাদা বালিতে নাচছে, লাউডস্পিকারে সংগীত বাজছে। এটি সউদীতে চলমান পরিবর্তনের একটি ছোট্ট অনুস্মারক, যা আধুনিকীকরণ অভিযানে তার কিছু কঠোর সামাজিক কঠোরতাকে সহজ করার চেষ্টা করছে।

২০১৭ সাল পর্যন্ত পাবলিক প্লেসে মিউজিক নিষিদ্ধ ছিল, যা ধর্মীয় পুলিশ প্রয়োগ করত এবং এক বছর পরে মহিলাদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়। সমুদ্র সৈকতে এখনও সাধারণত পুরুষ এবং মহিলাদের মধ্যে পৃথক করা হয়।

কিন্তু ৩০০ সউদী রিয়াল (৮০ ডলার) এর বিনিময়ে আসমা এবং তার সঙ্গী জেদ্দার কাছে বিশুদ্ধ সৈকতে প্রবেশ করতে পারেন, এর সঙ্গীত, নাচ এবং ইনফ্ল্যাটেবল ওয়াটার পার্ক যাকে ওপর থেকে দেখলে ইংরেজিতে সউদী আরব-এর মতো দেখা যায়।

তিনি বলেন, ‘আমি খুশি যে, আমি এখন আমার সময় উপভোগ করতে নিকটবর্তী সমুদ্র সৈকতে আসতে পারি’। ‘এটি মজার প্রতীক ... এখানে আমাদের আসা এবং একটি সুন্দর উইকএন্ড কাটানো আমাদের স্বপ্ন ছিল’।

সূর্য ডুবে যাওয়ার সাথে সাথে, শিল্পীরা আলোকিত মঞ্চে সংগীতের সাথে সাথে নাচেন। জেদ্দার সিটি সেন্টার থেকে প্রায় ১২৫ কিলোমিটার (প্রায় ৮০ মাইল) উত্তরে কিং আব্দুল্লাহ ইকোনমিক সিটিতে বিশুদ্ধ সৈকত।

মিসরীয় হাদিল ওমর বলেন, ‘আমি এখানে বড় হয়েছি এবং কয়েক বছর আগেও আমাদের গান শোনার অনুমতি ছিল না’।

উপসাগরীয় রাষ্ট্রটির সামাজিক সংস্কারগুলো তার তেলনির্ভর অর্থনীতিকে বৈচিত্র্যময় করার আকাক্সক্ষায় উদ্দীপিত হয়, যার মধ্যে রয়েছে পর্যটন এবং দেশীয় ব্যয় উদ্দীপিত করা।

২০১৯ পর্যন্ত শুধুমাত্র ব্যবসায়িক ভ্রমণকারীরা এবং মুসলিম হজ্জ-ওমরাযাত্রী যেতে পারলেও পরে সউদী আরব পর্যটক ভিসা দেওয়া শুরু করে। কিং আবদুল্লাহ ইকোনমিক সিটির ইভেন্টের প্রধান বিলাল সউদী বলেন, সৈকতটি নির্মিত ‘স্থানীয় দর্শনার্থী এবং (বিদেশী) পর্যটক উভয়কেই লক্ষ্য করে’।

একজন তরুণ সউদী ব্যবসায়ী দিমা বলেন, ‘আমি অনুভব করি যে, আমাকে আর ভাল সময় কাটানোর জন্য (বিদেশে) ভ্রমণ করতে হবে না, কারণ এখানে সবকিছু আছে’। সূত্র : এএফপি, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।



 

Show all comments
  • মিরাজ আলী ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ২:০৯ এএম says : 0
    সৌদি আরবে যে কি হতে চলেছে!
    Total Reply(0) Reply
  • তৌহিদুজ জামান ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ২:০৯ এএম says : 0
    ইসলামি আইনকানুন আস্তে আস্তে শিথিল করে ফেলা হচ্ছে।
    Total Reply(0) Reply
  • তানিম আশরাফ ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ২:০৯ এএম says : 0
    সৌদি আরবে এখন পাপ বাড়বে। তাদের হেদায়েত কামনা করি।
    Total Reply(0) Reply
  • দেওয়ান মাহদী ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ২:১০ এএম says : 0
    যাক পশ্চিমাদের জন্য একটি ভালো খবর।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী আরব


আরও
আরও পড়ুন